নির্মম নিষ্ঠুর পাশবিক, কী বলা যায় এই গণপিটুনিকে?

আপডেট: অক্টোবর ৬, ২০১৯, ১:২৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতের বিহার রাজ্যের স্থানীয় এক কাউন্সিলরের ছেলেকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে সেখানকার উত্তেজিত একদল উগ্রপন্থী হিন্দুরা। কাউন্সিলরের ওই ছেলেকে মাটিতে ফেলে কিল, ঘুষি, লাথির পাশাপাশি বুকের ওপর উঠে লাফিয়ে পড়ে হত্যা করা হয় তাকে। শনিবার দেশটির ইংরেজি দৈনিক ইন্ডিয়া ট্যুডে এই হত্যাকাণ্ডের খবর দিলেও নির্মম গণপিটুনির শিকার যুবকের পরিচয় প্রকাশ করেনি।
ইন্ডিয়া ট্যুডে বলছে, বিহারের কাইমুর জেলার ভাবুয়ার ওয়ার্ড কাউন্সিলরের ছেলে এক ব্যক্তিকে গুলি করেছেন বলে অভিযোগ উঠে। পরে গুলিবিদ্ধ ব্যক্তি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনার পর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের অভিযুক্ত ছেলেকে ধরে নিয়ে যায় স্থানীয় একদল উত্তেজিত জনতা। তারা দিবালোকে পুলিশের সামনে কাউন্সিলরের ছেলেকে গণপিটুনি দেয়।
ভাবুয়ার শিবাজি চক এলাকায় নির্মম এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেখা যায়, উত্তেজিতরা জয় শ্রী রাম স্লোগান দিয়ে কাউন্সিলরের ছেলেকে নির্মমভাবে পিটুনি দিচ্ছে। এ সময় চারদিক থেকে ওই যুবকের ওপর একের পর এক কিল, ঘুষি, লাথি পড়তে থাকে। নির্মম গণপিটুনিতে ওই যুবক জ্ঞান হারিয়ে ফেললেও তার বুকের ওপর উঠে নাচতেও দেখা যায়।
এমনকি এক ব্যক্তি শূন্যে লাফিয়ে উঠে মাটিতে পড়ে থাকা ওই যুবকের বুকের ওপর আছড়ে পড়ে। এক পথচারী নির্মম এই গণপিটুনির দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করেন। পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধারের পর কাইমুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে মারা যায়।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ