নিসানকা ঝড়ে ম্লান সাইফের সেঞ্চুরি

আপডেট: আগস্ট ২৫, ২০১৯, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সাইফ হাসানের দায়িত্বশীল সেঞ্চুরিতে লড়াই করার মতো সংগ্রহ পেয়েছিল বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল। তবে পাথুম নিশানকার ঝড়ো সেঞ্চুরিতে তৃতীয় এক দিনের ম্যাচ সহজেই জিতে সিরিজ ঘরে তুলেছে শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল।
খুলনার শেখ আবু নাসের চৌধুরী স্টেডিয়ামে বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে ৭ উইকেটে জিতেছে চারিথ আসালঙ্কার দল।
সাইফের সেঞ্চুরি ও আফিফ হোসেনের ফিফটিতে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ২৬৯ রান করে বাংলাদেশ। বৃষ্টির বাধায় শ্রীলঙ্কা পায় ২৮ ওভারে ১৯৯ রানের লক্ষ্য। ২৪ বল বাকি থাকতেই সেই লক্ষ্য ছুঁয়ে ২-১ ব্যবধানে তিন ম্যাচের সিরিজ জিতে সফরকারীরা।
টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। টানা তৃতীয় ম্যাচে ব্যর্থ মোহাম্মদ নাঈম। তিন ম্যাচেই ফিরলেন এক অঙ্কের ঘরে।
সাইফের সঙ্গে ৭৪ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। আগের ম্যাচের জয়ের নায়ক ইয়াসির আলী চৌধুরী ফিরেন দ্রুত। ২৫তম ওভারে ৯৫ রানে তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া বাংলাদেশকে টানেন সাইফ ও আফিফ।
চতুর্থ উইকেটে দুই তরুণ গড়েন ১২৫ রানের জুটি। সেঞ্চুরির পর বেশিদূর যেতে পারেননি সাইফ। ৭ ছক্কা ও ৪ চারে ১৩০ বলে করেন ১১৭। শেষটায় প্রত্যাশিত ঝড় তুলতে পারেনি বাংলাদেশ। ৭০ বলে অপরাজিত ৬৮ রানের ইনিংসে দলকে ২৬৯ পর্যন্ত নিয়ে যান আফিফ।
ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে শ্রীলঙ্কার লক্ষ্যটা খুব একটা সহজ ছিল না। ওপেনার নিসানকার ঝড়ো সেঞ্চুরি আর মিনোদ ভানুকার বিস্ফোরক ফিফটিতে সহজেই লক্ষ্য ছুঁয়ে ফেলে সফরকারীরা।
নিসানকার ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা করা লঙ্কানরা ৬৮ রানে হারায় দুই উইকেট। ক্রিজে যাওয়ার পর কিপার-ব্যাটসম্যান ভানুকাও শট খেলতে শুরু করলে দ্রুত এগিয়ে যায় সফরকারীরা।
৩২ বলে পাঁচ চার ও তিন ছক্কায় ৫৫ রান করা ভানুকাকে বোল্ড করে ১২২ রানের জুটি ভাঙেন ইয়াসিন আরাফাত। ততক্ষণে শ্রীলঙ্কা চলে গেছে জয়ের দুয়ারে। কামিন্দু মেন্ডিসকে নিয়ে বাকিটা সারেন নিসানকা। ৭৮ বলে আট চার ও পাঁচ ছক্কায় এই ওপেনার অপরাজিত থাকেন ১১৫ রানে।
আগামী মঙ্গলবার খুলনাতেই শুরু হবে প্রথম চার দিনের ম্যাচ।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল: ৫০ ওভারে ২৬৯/৫ (সাইফ ১১৭, নাঈম ৬, শান্ত ৩৯, ইয়াসির ৯, আফিফ ৬৮*, জাকির ৭, ইয়াসিন ১৩*; ফার্নান্দো ১/৪৮, পেরেরা ২/৪৭, ড্যানিয়েল ০/৪৮, রমেশ মেন্ডিস ১/৪৪, হাসারাঙ্গা ১/৫৮, কামিন্দু মেন্ডিস ০/২১)
শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল: (লক্ষ্য ২৮ ওভারে ১৯৯) ২৪ ওভারে ১৯৯/৩ (নিসানকা ১১৫*, বোয়াগোদা ১২, আসালঙ্কা ২, ভানুকা ৫৫, কামিন্দু মেন্ডিস ৫*; শফিকুল ০/৩৫, ইয়াসিন ১/২৯, নাঈম ০/৬০, রবিউল ১/৩৯, আমিনুল ১/৩২)
ফল: শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল ৭ উইকেটে জয়ী

সিরিজ: তিন ম্যাচের সিরিজে শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল ২-১ ব্যবধানে জয়ী
ম্যান অব দা ম্যাচ: পাথুম নিসানক