নেতৃত্ব না দিতে হলেই সাকিবের ‘ভালো’

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯, ১:৪৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক তিনি। তিন সংস্করণেই অধিনায়কত্ব হয়তো পাবেন সামনে। কিন্তু চালিয়ে যেতে খুব একটা উৎসাহী নন সাকিব আল হাসান। তবে নেতৃত্ব যদি দিতেই হয়, তাহলে বিসিবির সঙ্গে কিছু ব্যাপার নিয়ে আলোচনা করতে চান এই অলরাউন্ডার।
আফগানিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের শেষ দিনে কেবল ৭০ মিনিট টিকে থাকার লড়াইয়ে ব্যর্থ হয়ে ২২৪ রানে হারের পর সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়কত্ব নিয়ে নিজের ভাবনা জানালেন সাকিব।
দেশের ক্রিকেটের সার্বিক নিয়ে গত কিছুদিন ধরেই সংবাদমাধ্যমে নানা দিক তুলে আসছেন সাকিব। ঘরোয়া ক্রিকেটের দুরাবস্থা নিয়ে বলেছেন। ক্রিকেটারদের ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে খেলানো বা ‘রোটেশন পলিসি’ চালুর কথা বলেছেন। মানসিকতায় পিছিয়ে থাকার কথা উল্লেখ করেছেন। তিন সংস্করণের প্রতিটির জন্য আলাদা করে উপযুক্ত খেলোয়াড় তৈরি ও বাছাই করার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেছেন।
আফগানিস্তানের কাছে টেস্ট হারার পর সাকিব আরেকবার ছুঁয়ে গেলেন সেই প্রসঙ্গগুলো। তাতে ফুটে উঠল দেশের ক্রিকেটের অনেক বাস্তবতা।
“আমাদের বুঝতে হবে যে কে কোন ফরম্যাটের জন্য ভালো হবে। সেটাতেই লেগে থাকতে হবে। খুব বেশি বাছাই করার আমাদের জায়গা নেই। কারণ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ যদি দেখেন, একটি সেট আপে হয়, যেখানে মাত্র ১০-১১টি ম্যাচ হয়। এগুলো দেখেই আমাদের খেলোয়াড় বাছাই করতে হয়। একটি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট বিপিএল, সেখান থেকে খেলোয়াড় বাছাই করতে হয়। একটি হয় জাতীয় লিগ। এই তিন ফরম্যাট থেকে আমাদের তিন ধরণের খেলোয়াড় বাছাই করতে হয়। তাই খুব বেশি অপশন আছে বলে আমার মনে হয় না।”
“সত্যি কথা বলতে, এটা উপলব্ধি করতে হবে যে ওই খেলোয়াড়ের ওই ফরম্যাট খেলা প্রাপ্য, তার ওই ফরম্যাটে ভালো করার সম্ভাবনা আছে। আমার কাছে মনে হচ্ছে, সামগ্রিক একটি বড় পরিকল্পনা করে এগোতে হবে। তা না হলে হয়তো এমন ফলাফল মাঝে মাঝেই চলে আসবে।”
সাকিবের নানা পরামর্শের সূত্রেই এলো তার দায়িত্বের কথা। অধিনায়ক হিসেবে দেশের ক্রিকেটের উন্নতির লক্ষ্যে তার ভাবনাগুলো নিয়ে কি বিসিবির সঙ্গে কথা বলবেন? সাকিবের উত্তর হলো চমকপ্রদ।
“অধিনায়কত্ব যদি না করতে হয়, তাহলে সেটা সব থেকে ভালো হবে আমার জন্য। আমার কাছে মনে হয় নিজের ক্রিকেটের জন্য ভালো হবে, ব্যক্তিগত দিক থেকে চিন্তা করলে। আর নেতৃত্ব যদি দিতেই হয়, তাহলে অবশ্যই অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা করার ব্যাপার আছে।”