নেশার টাকা না দেওয়ায় নাটোরে মাদকাসক্ত ছেলের হাতে মা খুন : আহত এক

আপডেট: মার্চ ২৮, ২০১৭, ১:১৯ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


নেশার টাকা না দেওয়ায় নাটোরে মাদকাসক্ত মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতে খুন হয়েছেন মা হাওয়া বেগম (৫০)। এসময় বাধা দিতে গিয়ে বোটির আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছে নিহতের বাবা শুকুর আলী। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ৯টার দিকে সদর উপজেলার তেলকুপিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এই ঘটনায় মাদকাসক্ত শিমুল হোসেনকে (২০) আটক করে পুলিশের সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। নিহত হাওয়া বেগম তেলকুপি উচ্চবিদ্যালয়ের নাইট গার্ড মোন্তাজ আলীর স্ত্রী।
নাটোর তেলকুপি উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামাল হোসেন জানান, গত রোববার রাতে নেশার জন্য মা হাওয়া বেগমের কাছে টাকা চায় মাদকাসক্ত মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে শিমুল হোসেন। সেসময় মা হাওয়া বেগম সোমবার সকালে টাকা দিবে বলে ছেলেকে শান্ত করে। এরপর সকালে মা হাওয়া বেগম রান্না ঘরে রান্নার কাজ করছিল। এসময় শিমুল রান্না ঘরে ঢুকে বোটি দিয়ে তার মাকে জবাই করে হত্যা করে। এসময় বাড়িতে থাকা শিমুলের নানা শুকুর আলী মেয়ে হাওয়া বেগমকে উদ্ধার করতে গেলে তাকেও কুপিয়ে জখম করে শিমুল। পরে স্থানীয়রা ছুটে এসে শিমুলকে আটক করে। আর গুরুতর জখম অবস্থায় শুকুর আলীকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্তি পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত বলেন, কিছুদিন আগে মাদকাসক্ত শিমুল হোসেন মাদকাসক্ত মামলায় ছয় মাস জেলহাজতে থাকার পর জামিনে বেরিয়ে আসে সে। মাদক সেবন করতে করতে সে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েছে। নেশার টাকা না পাওয়ার জন্যই তার মাকে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। পরে তদন্ত করে বিস্তারিত জানা যাবে।