পঞ্চগড়ে বাসচাপায় নিহত বেড়ে ৭ তিন জেলায় আরো ৪জন নিহত

আপডেট: নভেম্বর ৯, ২০১৯, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পঞ্চগড়-তেঁতুলিয়া মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাসচাপায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে সাতজনের দাঁড়িয়েছে।
শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে মাগুরমারী চৌরাস্তা আমতলী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। প্রাথমিকভাবে নিহতদের নামপরিচয় জানা যায়নি।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন। তিনি সাত জন নিহত হওয়ার তথ্য বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঘাতক বাসটি যাত্রী নিয়ে পঞ্চগড় থেকে তেঁতুলিয়ার দিকে যাচ্ছিলো। এসময় মাগুরমারী চৌরাস্তা আমতলী এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ব্যাটারিচালিত ইজিবাইককে চাপা দেয় বাসটি। এতে ঘটনাস্থলে ৫ জন ও হাসপাতালে নেওয়ার পর আরও দু’জনের মৃত্যু হয়।
এদিকে দুর্ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও সাংবাদিকদের ওপর হামলা করে। এতে তেঁতুলিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উপ পরিদর্শক (এসআই) রাজিবুল, কনস্টেবল রিপন, সফিউল ও স্থানীয় সাংবাদিক দিদার হোসেন বাদশা আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। পরে পুলিশ সদস্যরা স্থানীয় মাগুরমারী বিওপি ক্যাপে গিয়ে আশ্রয় নেয়।
বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতার সঙ্গে পুলিশের থেমে থেমে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলছিল।
ওই ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার চাইলা প্রু মার্মা বাংলানিউজকে জানান, পরিস্থিতি শান্ত করতে কাজ করছি।
ট্রাকের ধাক্কায় বাবা-ছেলে নিহত
কেরানীগঞ্জের রুহিতপুরে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী বাবা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।
নিহতরা হলো- আসাদুল হক (৪০) ও তার ছেলে সোহান (৬)। আহত হয়েছেন আসাদুলের স্ত্রী রেশমা (৩০)।
ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘মৃতদেহ দুটি মর্গে রাখা হয়েছে। রেশমা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।’
আহত রেশমা জানান, তারা সায়েদাবাদ করাতিটোলা এলাকায় থাকেন। মোটরসাইকেলে করে শ্বশুরবাড়ি কেরানীগঞ্জের বাগমারায় যাচ্ছিলেন।
গাইবান্ধায় লেগুনা খাদে পড়ে চালকের মৃত্যু
গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে বাসের ধাক্কায় লেগুনা খাদে পড়ে চালক আরিফের (২০) মৃত্যু হয়েছে।
শুক্রবার (০৮ নভেম্বর) সকালে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে উপজেলার মহেশপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
আরিফ জেলার সাদুল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের তিলকপাড়া গ্রামের ট্রাকচালক সঞ্জু মিয়ার ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে বাড়ি থেকে লেগুনা নিয়ে বের হন আরিফ। তিনি ধাপেরহাট থেকে পলাশবাড়ী আসার পথে মহেশপুর এলাকায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রংপুরগামী হানিফ এন্টারপ্রাইজের একটি বাস লেগুনাটিকে ধাক্কা দেয়। এতে লেগুনাটি মহাসড়কের পাশে খাদে পড়ে ঘটনাস্থলেই চালক আরিফের মৃত্যু হয়। তখন লেগুনায় কোনো যাত্রী ছিল না।
না’গঞ্জে অটোরিকশার ধাক্কায় প্রধান শিক্ষিকা নিহত
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় অটোরিকশার ধাক্কায় মাহমুদা আক্তার নামে প্রধান শিক্ষিকা নিহত হয়েছেন। তিনি নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইনস স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা ছিলেন।
শুক্রবার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে পুলিশ লাইনসের সামনে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে রাস্তা পারাপারের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ, বাংলা ট্রিবিউন