পবায় কৃষকদের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক

আপডেট: নভেম্বর ৭, ২০১৮, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

পবা প্রতিনিধি


পবায় বীজ বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক এসএম আবদুল কাদের সোনার দেশ

রাজশাহীর পবা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে রবি ও খরিপ মৌসুমে প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদের। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, সরকারের সঠিক পদক্ষেপ ও কৃষকের প্রচেষ্টার ফলেই দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে।
জেলা প্রশাসক বলেন, এখন আর তেমন সন্ত্রাস ও জঙ্গি নেই। বোমাবাজিও কঠোর হাতে দমন করেছে এ সরকার। এখন আর সার-বীজের জন্য কাউকে জীবন দিতে হয় না। আর কোনো বাংলাভাইয়ের সৃষ্টি হয় না। যে সরকার দেশের মানুষের জন্য নিবেদিত, দেশের উন্নয়নের জন্য চিন্তা করে, সারা বিশ্বে যে সরকার দেশকে বিদেশে উজ্জ্বল করে তোলে, যে সরকার শক্তহাতে জঙ্গি-সন্ত্রাস ও বোমা হামলা দমন করতে পারে, যে সরকার কৃষকদের সার ও বীজের প্রাপ্যতা নিশ্চিত করতে পারে কেবল বর্তমান সরকার।
পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ নেওয়াজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা কৃষি প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা মুঞ্জুরুল হক, পবা উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বেগম খায়রুন্নেসা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহীন মিয়া, তারিকুল ইসলাম, জর্জ মিত্র চাকমা, সানজিদা রিকতা, সবিতা সরকার, সায়লা সাইদ তন্বী।
পবা সহকারি কমিশনার (ভূমি) নূরুল হাই মোহাম্মদ আনাছ’র পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, পবা উপজেলা অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা। বক্তব্য রাখেন, কৃষক আব্দুর রাজ্জাক। এ উপজেলার এক হাজার ৬৫ জন কৃষকের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ করা হয়।
যার মধ্যে ৩৬০ জন কৃষক প্রত্যেকে সরিষা বীজ এককেজি, ডিএপি ২০ কেজি ও এমওপি ১০ কেজি। ৩০০ জন কৃষক প্রত্যেকে গম বীজ ২০ কেজি, ডিএপি ২০ কেজি ও এমওপি ১০ কেজি। ১৪০ জন কৃষক প্রত্যেকে ভূট্টা বীজ ২ কেজি, ডিএপি ২০ কেজি ও এমওপি ১০ কেজি। ২০০ জন কৃষক প্রত্যেকে মুগ বীজ ৫ কেজি, ডিএপি ১০ কেজি ও এমওপি ৫ কেজি। ৬০ জন কৃষক প্রত্যেকে তিল বীজ এককেজি, ডিএপি ২০ কেজি ও এমওপি ১০ কেজি। এছাড়াও ৫ জন কৃষক প্রত্যেকে বিটি বেগুন বীজ ২০গ্রাম, ডিএপি ২০ কেজি ও এমওপি ১০ কেজি। এই উপজেলায় কৃষকরা প্রায় ১৩ লাখ টাকার সার ও বীজ প্রনোদনা পাচ্ছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ