পার্বতীপুরে দুই শতাধিক গরু ল্যাম্পি স্কিন ডিজিজে আক্রান্ত

আপডেট: নভেম্বর ১০, ২০১৯, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

পার্বতীপুর প্রতিনিধি


দিনাজপুরের পার্বতীপুরে গরুর ল্যাম্পি স্কিন রোগ ব্যাপক হারে দেখা দিয়েছে। গত ১ মাসে উপজেলায় দুই শতাধিক গরু এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এই রোগের প্রাদুর্ভাবের কারণে আতঙ্কে রয়েছেন গরুর মালিকেরা। কারণ ভাইরাস জনিত এই রোগের সুনির্দিষ্ট কোন চিকিৎসা বা প্রতিসেধক নেই। প্রতিষেধক হিসেবে সরকারি ভাবে যে পরিমান ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হচ্ছে তা প্রয়োজনের তুলনায় কম।
উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের গরু পালনকারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ল্যাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত গরুর গায়ে প্রথমে বসন্তের মত গুটি দেখা দিচ্ছে। দু-এক দিনের মধ্যেই গুটিগুলো গরুর পুরো শরীরে ছড়িয়ে পড়ছে। আক্রান্ত গরু খাওয়া দাওয়া ছেড়ে দিচ্ছে। রোগাক্রান্ত কোন কোন গরুর বুকের নিচে অথবা পায়ে পানি জমের ক্ষত সৃষ্টি হচ্ছে। ক্ষত স্থান পচে সেখান থেকে মাংস খসে পড়ছে।
গতকাল শনিবার উপজেলার মধ্যদর্গাপাড়া গ্রামে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ওই গ্রামের নূর ইসলামের ৪টি গরু ও নূর মোহাম্মাদের ৯টি গরু ল্যাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এছাড়াও মন্ডলপাড়া গ্রামের ময়জাল সরদারের ৬টি গরু ল্যাম্পি স্কিনে আক্রান্ত হয়েছে। একই রোগে আক্রান্ত হয়েছে চন্ডিপুরের নূর আলম ও বাবুর গরু এবং দোলাপাড়ার মানি ও ভোটগাছের নাজমূল ও সাখাওয়াতের গরু। এভাবেই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়েছে এই রোগ।
ইতোমধ্যে ল্যাম্পি স্কিন রোগে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ২ শতাধিক গরু আক্রান্ত হয়েছে। দ্রুত এই রোগ ছড়িয়ে পড়ায় এলাকার গরুর মালিকেরা আতঙ্কিত হয়ে পরেছেন। এদিকে রোগ প্রতিরোধে সরকারি ভাবে এই রোগের বিপরীতে যে পরিমান এনটি ভাইরাস ভ্যাকসিন সরবরাহ করা হয়েছে তা প্রয়োজনের তুলনায় নগন্য।
এ ব্যাপারে পার্বতীপুর উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা মো. আবদুর রাজ্জাকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ইতোমধ্যে এই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ল্যাম্পি স্কিন রোগে বেশ কিছু গরু আক্রান্ত হয়েছে। এটি একটি নতুন রোগ। এইরোগের কোন নির্ধারিত ওষুধ নেই। তবে এই রোগ প্রতিরোধের জন্যে আমরা ইতোমধ্যে উপজেলার মোবারকপুরে সরকারি ভাবে পাওয়া ১৫ শ মাত্রা Goat Pox ভ্যাকসিন প্রয়োগ করেছি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ১৫শ গরুকে এই প্রতিষেধক দেওয়া হয়েছে। তবে গরুর তুলনায় প্রতিষেধক সরবরাহের মাত্রা কম। কারণ এই উপজেলায় গরু রয়েছে প্রায় ২ লাখ। তার পরেও আমরা বিভিন্ন ভাবে চিকিৎসা ও পরামর্শ প্রদান করে যাচ্ছি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ