পার্বতীপুরে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

আপডেট: মার্চ ১০, ২০১৯, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

পার্বতীপুর প্রতিনিধি


দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায় এক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। পার্বতীপুর উপজেলার হাবড়া ইউনিয়নের ছামিজনের বাজার এলাকার আরজি মরনাই গ্রামের এ ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে পার্বতীপুর মডেল থানায় প্রতিবন্ধী কিশোরীর পিতা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
জানা গেছে, গত বুধবার দুপুরে উপজেলার কুশলপুর গ্রামের অফিল উদ্দীনের ছেলে ছামিজন বাজার এলাকার কীটনাশক ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন খুদু (৪৮) একই এলাকার আরজি মরনাই গ্রামের বুদ্ধি প্রতিবন্ধী (১২) এক কিশোরীকে কৌশলে তার দোকানে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এসময় ওই কিশোরীর গোঁঙ্গানীর শব্দ শুনে পথচারী একই এলাকার কে নারী স্থানীয়দের সহযোগীতায় বস্ত্রহীন অবস্থায় দোকান ঘর থেকে এই কিশোরীকে উদ্ধার করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়।
এ দিকে ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আনোয়ার এ বিষয়ে মুখ না খুলতে প্রত্যক্ষদর্শী ওই নারীকে বার বার বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে বলে জানান ওই নারী। তিনি আরো বলেন, দোকানের দরজা খুলে ভিতরে ঢুকতেই তার উপর আক্রমন চালিয়ে পড়নের কাপড় টেনে ছিড়ে ফেলে আনোয়ার।
ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী জানায়, টাকা দেয়ার কথা বলে আনোয়ার রাস্তা থেকে দোকানে নিয়ে গিয়ে আমার মুখ বেধে ধর্ষণ করে। পরে গত বৃহস্পতিবার রাতে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে পার্বতীপুর মডেল থানায় ধর্ষণের অভিযোগ এনে একটি দায়ের করেন।
ধর্ষণ ঘটনার পর বিষয়টিকে অন্যদিকে প্রবাহিত করার লক্ষে কীটনাশক শরীরে মেখে তা পান করেছেন বলে জানান অভিযুক্ত আনোয়ার হোসেন খুদু। পরে তাকে পার্বতীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে তার পরিবার। কিন্তু মামলা রজু হওয়ার পর থেকে আনোয়ার হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়।
এ বিষয়ে পার্বতীপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোখলেছুর রহমান ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত করে বলেন, ভিকটিমের জবানবন্দী অনুযায়ী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ