‘প্রতিদিনই শিক্ষক দিবস হওয়া উচিৎ’

আপডেট: অক্টোবর ৬, ২০১৯, ১:২৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাবা-মায়ের পর শিক্ষকদের স্নেহে, প্রশ্রয়ে, শিক্ষায়, সহমর্মিতায় প্রতিনিয়ত আমরা ঋদ্ধ হই। আমাদের আচরণের বহিঃপ্রকাশ কী হবে, শিশুবয়স থেকেই উচিত-অনুচিতের বোধ আমরা শিক্ষকের কাছ থেকেই জানতে পারি। শনিবার ছিল বিশ্ব শিক্ষক দিবস। ১৯৯৫ সাল থেকে প্রতি বছর এই দিন বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালিত হয়ে আসছে।
দিনটিকে স্মরণ করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মম রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘বাবা মায়ের পরে শিক্ষকের অবদান অনেক। কিন্তু এখনকার সময় শিক্ষকদের মর্যাদা অনেকটা কমে গিয়েছে। এটা দুঃখজনক। বিশ্ব শিক্ষক দিবসে সকল শিক্ষকদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা। তাদের সুস্থ ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।’
জাকিয়া বারী মম তার প্রিয় শিক্ষক সম্পর্কে বলেন, ‘তাঁর নাম ইউসুফ হাসান অর্ক। তিনি আমাকে অনেক উৎসাহ দিয়েছেন। তিনি শুধু শিক্ষকই নন, আমার ভালো বন্ধু, মেন্টর। একজন শিক্ষকের যে কোয়ালিটি প্রয়োজন সবগুলো তাঁর মধ্যে রয়েছে। আমার পরিবারের অনেকেই শিক্ষক। ছোটবেলা থেকেই শিক্ষকদের সান্নিধ্যে বড় হয়েছি। আমি মনে করি, প্রতিদিনই শিক্ষক দিবস হওয়া উচিৎ। তাঁদের যথাযোগ্য সম্মান করা উচিৎ।’
লাক্স তারকা জাকিয়া বারী মম ২০০৭ সালে ‘দারুচিনি দ্বীপ’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন। এই সিনেমায় অভিনয় করে তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। তারপর বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে দেখা গেছে তাকে। বর্তমানে নাটক-টেলিফিল্মের কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন এই অভিনেত্রী।