প্রথমবারের মতো মার্কিন কংগ্রেসে ইফতার মাহফিল আয়োজিত

আপডেট: মে ২২, ২০১৯, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ইতিহাসে প্রথমবারের মতো মার্কিন কংগ্রেস ভবনে ইফতারের আয়োজন করলো মুসলিম প্রতিনিধিরা। এতে অংশ নিয়েছেন প্রতিনিধি পরিষদের অনেক সদস্য। তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।
হোয়াইট হাউসে প্রতিবছরই মুসলিম কূটনীতিকদের সম্মানে ইফতারের আয়োজন করা হয়। হোয়াইট হাউসে এ ইফতার পার্টি আয়োজনের সংস্কৃতি শুরু করেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন। তবে কংগ্রেস ভবনে ইফতারের আয়োজন এবারই প্রথম।
এই ইফতারের মূল আয়োজনে ছিলেন কংগ্রেসে ডেমোক্রেটিক সদস্য ইলহান ওমার, রশিদা তালিব এবং অ্যান্দ্রে কারসন। এছাড়া মুসলিমদের নিয়ে কাজ করা অলাভজনক সংগঠন মুসলিলম অ্যাডভোকেটসও এই আয়োজনে সহায়তা করে।
এই ইফতারের মাধ্যমে কংগ্রেসে প্রথম নির্বাচিত মুসলিম নারী তালিব ও ইলহান ওমরের প্রতি বাকিদের সমর্থন আরও একবার সামনে আসলো। ইফতারে প্রায় ১০০ জন উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ২০১৬ নির্বাচনি প্রচারণায় ট্রাম্পের সমালোচনার শিকার খিজর খানও। তবে উপস্থিত হতে পারেননি স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি।
ক্যাপিটল হিলের সেই ইফতার আয়োজনে সবার প্লেটেই ছিলো খেঁজুর, সালাদ, ফল ও সেদ্ধ কুমড়া। ছিলো আইসক্রিম। ইফতারের জন্যই তৈরি করা হয়েছিলো সব।
ইফতারের আগমুহূর্তে দেয়া বক্তব্যে তালিব বলেন, এই আয়োজনের মাধ্যমে চোখের আড়ালে থেকে যাওয়া একটি গোষ্ঠীকে আবার সামনে আনা হয়েছে। আমাদেরকে অন্যায়ভাবে লক্ষবস্তু বানানো হচ্ছে। বিদ্বেষ ছড়ানো হচ্ছে।
তালিব বলেন, আমরা সবকিছু অন্য দৃষ্টিতে দেখতে চেয়েছি। সমালোচকরা আমদের সমালোচনা করলেও সাহসের সঙ্গেই আমরা করতে পেরেছি।
ইলহান ওমর বলেন, এটা দারুণ। বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী মানুষগুলোর সঙ্গে বসে এই ঐতিহ্য বরণ করার অনুভূতিই অন্যরকম।
সিনেটর রিচার্ড জে ডাবিন বলেন, ধর্ম আপনার মূল্যবোধ তৈরি করে। বিদ্বেষ তৈরি করে এমন আমরা শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদ বন্ধ করবো আমরা।
প্রতিনিধি পরিষদের সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা স্টেনি এইচ হয়ের বলেন, ‘বাইবেল আমাকের শুধু খ্রিস্টান প্রতিবেশীদের ভালোবাসতেই শিক্ষা দেয় না। বরং সব মানুষকেই ভালোবাসতে শেখায়। ’
তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন