প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য জঙ্গিদের মদদদাতা মিনুর রাজনৈতিক শিষ্টাচারের মধ্যে পড়ে না: আসাদ

আপডেট: অক্টোবর ১৭, ২০১৯, ১:৫৮ পূর্বাহ্ণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি


জেলা আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল সোনার দেশ

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, জাতিসংঘের সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনাকে বিশ্ব মানবতার মাতা, শান্তিকামী জনগণের আস্থার প্রতিক বলে আখ্যায়িত করে জাতিসংঘে ভাষণ দেয়ার আহবান জানান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভাষণ শুরু করার আগমূহুর্তে বিশ্বের সকল নেতারা দাঁড়িয়ে সম্মান জানায়। আর বিএনপির মিনু বিশ্ব দরবারে উচ্চ আসনে যে নেত্রী তার সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যে পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির জুতা বহন করার সাথে তুলনা করেন। তার দৃষ্টতা দেখে রাজশাহীবাসী অবাক হয়েছে। কিন্তু তার মত জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের মদদদাতা রাজনীতিবিদের পক্ষে এর চেয়ে রাজশাহীবাসী ভাল আশা করতে পারে না। যে কোনো দিন মানুষকে সম্মান দিতে পারে না সে কখনই জাতীয় পর্যায়ের রাজনীতিবিদ হতে পারে না। মিনু সাহেবরা রাজশাহীতে সকল কিছু দলীয়করণ করেছিল। রাজশাহীবাসী তাদের অত্যাচার, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকা-ে অতিষ্ঠ ছিল। এই শান্তিপ্রিয় রাজশাহীকে বিএনপির মিনু অশান্ত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। সে জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে এমন বক্তব্য দিতে তার সামান্য বুক কাঁপেনি। রাজশাহীবাসী বিএনপির সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে। ভারতের সাথে আওয়ামী লীগ সরকার ’৯৬ সালে ৩০ বছরের চুক্তি করে। সেই চুক্তিকে তখন বিএনপি দেশবিরোধী বলেছিল। বেগম জিয়া ক্ষমতায় এসে সেই চুক্তির পক্ষে সাফায় গেয়ে বর্ধিত করতে চেয়েছিল। এখন আবার ভারতের সাথে আওয়ামী লীগ সরকার চুক্তি করে এসেছে আর বিএনপি এইসব চুক্তিকে দেশবিরোধী বলছে। এইসব চুক্তি সরকারের ওয়েবসাইটে দেওয়া আছে। যে কেউ দেখতে পাবে। বিএনপির নেতাদের অনুরোধ রইল সেটি পড়ে দেখবেন। যদি চুক্তিটি দেশ বিরোধী হয় তাহলে আর আমরা আওয়ামী লীগ করব না। কিন্তু রাজশাহীর বিএনপি নেতা মিনুকে রাজশাহীবাসীই এলাকা ছাড়া করবে।
গতকাল বিকাল ৫ টায় রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নগরীর লক্ষীপুর মোড়ে বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিনু প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।
রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলফোর রহমানের পরিচালনায় সবাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আসাদুজ্জামান,
রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী সরকার, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ফারুক হোসেন ডাবলু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা সিরাত উদ্দিন শাহীন, উপ দপ্তর সম্পাদক প্রভাষক শরিফুল ইসলাম, রাসিক ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কাউন্সিলর নুরুজ্জামান টুকু, জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টু, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. নাসরিন আখতার মিতা, জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক আজাদ আলী, জেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার রফিকুজ্জামান রফিক, জেলা কৃষকলীগের সহ সভাপতি আবুল হোসেন, রাজপাড়া থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাসির উদ্দিন রুবেল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মারুফ হোসেন সহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ