প্রয়োজনীয় কিছু অ্যাপস

আপডেট: জানুয়ারি ৩, ২০১৯, ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আইফোন এবং অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আর এ সমস্ত ফোন হয়ে উঠেছে বিভিন্ন দরকারি অ্যাপস ব্যবহার করার অন্যতম মাধ্যম। এমনই কিছু অ্যাপস এর কথাই তুলে ধরা হলো এই লেখায়। নতুন আইফোন কিংবা অ্যান্ড্রয়েড ফোন কেনার সঙ্গেই সঙ্গেই এসব অ্যাপস ফোনে ইনস্টল করা উচিৎ।
গুগল ম্যাপস : গুগল ম্যাপে অনেকগুলো নতুন ফিচার যোগ করেছে গুগল। যার ফলে কোনো স্থান খোঁজার পাশাপাশি আরো অনেক সেবা মিলছে এতে। এছাড়াও এই অ্যাপ দিয়ে যেকোনো নির্দিষ্ট এলাকার রেস্তোরাঁ এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোঁজার কাজও করা যায়। যেকোনো জায়গায় নিজের অবস্থান বন্ধু এবং পরিবারের সঙ্গে শেয়ার করা যায় গুগল ম্যাপে।
নেটফ্লিক্স : ২০১৮ সালে বিনোদনের এক বড় মাধ্যম হিসেবে কাজ করেছে নেটফ্লিক্স। নিশ্চিতভাবেই নতুন বছরেও এর অন্যথায় হবে না। শিশু থেকে শুরু করে বয়স্ক মানুষ পর্যন্ত- সব বয়সী মানুষের জন্যই ভিডিও কন্টেন্ট রয়েছে এই ওয়েব সিরিজ প্লাটফর্মটিতে। আর এই মোবাইল অ্যাপটি ব্যবহার করাও সহজ।
ডার্ক স্কাই : আবহাওয়ার সর্বশেষ আপডেট জানতে অনেকগুলো থার্ড পার্টি অ্যাপ থাকলে এযাবৎকালের সর্বজনীনভাবে প্রশংসিত অ্যাপটির নাম ডার্ক স্কাই। এটি প্রতি এক মিনিট পর পর আপনাকে আবহাওয়ার সর্বশেষ আপডেট জানিয়ে দিবে। তবে অ্যাপ স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে আপনাকে গুনতে হবে ৩.৯৯ ডলার।
ওয়ান পাসওয়ার্ড : বর্তমানে অনলাইন দুনিয়ায় সবচেয়ে দুঃচিন্তার নাম পাসওয়ার্ড সুরক্ষা। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এবং ওয়েবসাইটে লগইন করার জন্য আমরা ভিন্ন ভিন্ন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করি। আবার বিভিন্ন অ্যাপে সাইন-ইন পাসওয়ার্ড মনে রাখার ঝামেলা তো রয়েছেই। তবে একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার আপনাকে এত সব ঝামেলা থেকে মুক্তি দিতে পারে। ওয়ান প্যাসওয়ার্ড ম্যানেজার ইনস্টল করার মাধ্যমে আপনার সকল পাসওয়ার্ডকে সুরক্ষিত রাখতে পারেন শুধুমাত্র একটি পাসওয়ার্ড মনে রাখার মাধ্যমে। এটি আপনাকে শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরি করতে এবং আপনার অ্যাকাউন্ট এবং তথ্য সুরক্ষিত রাখতে সহায়তা করবে।
পকেট : গেল বছর প্রচার মাধ্যমগুলোর জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ ছিল ভুয়া নিউজ এবং বিশ্বস্ত সংবাদের উৎসগুলোর গুরুত্ব সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে সচেতন করা। এক্ষেত্রে পকেটের মতো একটি অ্যাপ বেশ সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে। এটি আকর্ষণীয় বিষয়গুলোর ট্র্যাক রাখতে আপনাকে সহায়তা করবে যেন পরবর্তীতে সময়ে একটু সময় নিয়ে আপনি তা পড়তে পারেন। যেকোনো নিবন্ধন বা ওয়েবসাইট থেকে আকর্ষণীয় যেকোনো অংশও আপনি স্পট করে রাখতে পারবেন।
ফ্লিপবোর্ড : সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, বিশেষ করে যে বিষয়গুলো সম্পর্কে আপনার আগ্রহ রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে সর্বদা অবগত থাকতে ফ্লিপবোর্ড এর মতো একটি অ্যাপ খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। এর মাধ্যমে আপনি মূলত আপনার আগ্রহের বিষয়গুলো এবং যে বিষয়গুলো আপনি পড়তে ভালোবাসেন তার সমন্বয়ে আপনার ব্যক্তিগত ডিজিটাল ম্যাগাজিন তৈরি করতে পারবেন। তথ্যসূত্র : ইয়াহু নিউজ