ফিরে এলো চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপার স্টার

আপডেট: জানুয়ারি ৫, ২০১৮, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি


ওয়েস্টিন ঢাকার গ্রান্ড বলরুমে অনুষ্ঠিত হলো চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপার স্টার-এর লঞ্চ ইভেন্ট-সোনার দেশ

ওয়েস্টিন ঢাকার গ্র্যান্ড বলরুমে অনুষ্ঠিত হলো চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপার স্টার-এর লঞ্চ ইভেন্ট। গত বুধবার অপেক্ষার পালা শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করলো দেশের সবচেয়ে জমকালো প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠান লাক্স সুপার স্টার-এর কার্যক্রম।
শুধু সুন্দর মুখ নয়, একটি মেয়ে আরো অনেক কিছু। তার প্রতিভা, আত্মবিশ্বাস, দৃঢ়তা, পরিশ্রম ও প্রত্যয়- সবকিছু নিয়েই একটি মেয়ে। দেখা-অদেখা সবটা মিলেই সে অনন্য হয়ে ওঠে, আর লাক্স সুপার স্টার-এর এবারের আয়োজন এই অদেখা সৌন্দর্যের খোঁজেই।
‘দেখিয়ে দাও অদেখা তোমায়’ এই থিম ও নেমোনিক উন্মোচন করার পর রেজিস্ট্রেশন প্রসেস তুলে ধরা হয়। উন্মোচন করা হয় ওয়েবসাইটও। ডিজিটাল এই যুগের সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়েছে লাক্স সুপার স্টারের রেজিস্ট্রেশন প্রসেসও, হয়েছে আরো সহজ এবং কার্যকর। খীঁইধহমষধফবংয-এর ফেসবুক পেইজ অথবা ওয়েবসাইট িি.িষীঁংঁঢ়বৎংঃধৎ.পড়স-এ খুব সহজেই রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করা যাবে। এই ইভেন্টের মাধ্যমে শুরু হলো এবারের রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রমও। থিম ও ওয়েবসাইট উন্মোচন করতে এসে ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেডের স্কিন ক্লিনজিং-এর ক্যাটাগরি হেড নাদিয়া তাবাস্সুম বলেন, ‘প্রতিটি মেয়েই মাল্টি ফেসেটেড। তাকে এখন আর শুধুমাত্র বাহ্যিক সৌন্দর্য দিয়ে ডিফাইন করা যায় না। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যেমন আমাদের মেয়েরা বদলেছে তেমনই বদলেছে চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপার স্টারের রূপও। এই আয়োজনের মাধ্যমে প্রতিটি মেয়ের অনন্যতা সেলিব্রেট করতে চায় লাক্স।’
আয়োজনটির টিভি কমার্শিয়াল এবং প্রেস অ্যাডভার্টাইজমেন্ট উন্মোচন করেন, ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেডের হেড অব পারসোনাল কেয়ার নাফিস আনোয়ার। তিনি বলেন, ‘সাবেক লাক্স সুপার স্টারদের অনেকেই এখন ইন্ডাস্ট্রি লিড করছে। চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপার স্টার থেকে যথাযথ ট্রেনিং, গ্রুমিং ও মেন্টরিং-এর মাধ্যমে যারা বের হয়ে আসবে তারাও একদিন শীর্ষস্থানে পৌঁছে যাবে বলে আমার বিশ্বাস।’ তিনি আরো বলেন, ‘বরাবরই চ্যানেল আই-কে আমরা আমাদের সঙ্গে পেয়েছি। তাদের সহযোগিতা ও পৃষ্ঠপোষকতা সাবেক লাক্স সুপার স্টারদের নিজেদের প্রতিভা বিকাশে সহায়তা করেছে। চ্যানেল আই পরিবারকে তাই আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।’ চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর লাক্স সুপার স্টারের এবারের আসরের আনুষ্ঠানিক যাত্রা ঘোষণা করেন ও প্রতিযোগীদের শুভেচ্ছা এবং শুভকামনা জানান।
সবশেষে এবারের আসরের তিন বিচারক সাদিয়া ইসলাম মৌ, তাহসান খান এবং আরিফিন শুভকে সবার মাঝে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। তারা চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপার স্টার-এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন এই প্ল্যাটফর্ম থেকেই আগামীর সুপার স্টার উঠে আসবে।
এ বছরের লাক্স সুপার স্টার ক্রাউন জয়ী’র জন্য থাকছে একটি ব্র্যান্ড নিউ গাড়ি ও ৫ লক্ষ টাকা। পাশাপাশি ক্রাউনজয়ী বাংলাদেশে লাক্স-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ও ইউনিলিভার-এর ব্র্যান্ড কমিউনিকেশনস-এ পারফর্ম করবেন। শীর্ষস্থানীয় বিউটি ম্যাগাজিনগুলোয় কাভার গার্ল হওয়ার সুযোগের সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন অ্যাকাডেমিতে গ্রুমিং কোর্সও পাবেন নতুন এই লাক্স সুপার স্টার। এছাড়াও চ্যানেল আই-এর পক্ষ থেকে থাকছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম নির্মিত চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে এবং চ্যানেল আই-এর বিশেষ নাটকে অভিনয়ের সুযোগ। প্রথম রানার আপ-এর জন্য থাকছে ৪ লাখ টাকার নগদ অর্থ পুরস্কারের পাশাপাশি ইউনিলিভার-এর ব্র্যান্ড কমিউনিকেশনস-এ পারফর্ম করার সুযোগ। শীর্ষস্থানীয় বিউটি ম্যাগাজিনগুলোয় কাভার গার্ল হওয়ার সুযোগের সঙ্গে বাংলাদেশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন অ্যাকাডেমিতে গ্রুমিং কোর্সও পাবেন তিনি। দ্বিতীয় রানার আপ-এর জন্য থাকছে ৩ লাখ টাকার নগদ অর্থ পুরস্কারের পাশাপাশি ইউনিলিভার-এর ব্র্যান্ড কমিউনিকেশনস-এ পারফর্ম করার সুযোগ। শীর্ষস্থানীয় বিউটি ম্যাগাজিনগুলোয় কাভার গার্ল হওয়ার সুযোগের পাশাপাশি বাংলাদেশ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন অ্যাকাডেমিতে গ্রুমিং কোর্সও পাবেন তিনি। এছাড়াও টপ ১০-এর প্রতিটি প্রতিযোগী’র পোর্টফলিও তৈরি করবেন দেশের খ্যাতনামা ফটোগ্রাফারবৃন্দ। গণমাধ্যমকর্মী, সাবেক লাক্স তারকাবৃন্দ, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড ও চ্যানেল আই-এর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ অুনষ্ঠানটিতে উপস্থিত ছিলেন। সবশেষে সাবেক লাক্স তারকা, জাজ প্যানেল এবং চ্যানেল আই ও ইউনিলিভারের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আনুষ্ঠানিক ফটো সেশনে অংশ নেন।