বগুড়ার নন্দীগ্রামে একই স্থানে আ’লীগের দু’গ্রুপের কর্মসূচি নিয়ে উত্তেজনা

আপডেট: আগস্ট ২৮, ২০১৯, ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ

বগুড়া প্রতিনিধি


বগুড়ার নন্দীগ্রামে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। আজ বুধবার একই স্থানে দুই পক্ষ শোক র‌্যালি ও শোক সভা আহবান করায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।
জানা গেছে, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নন্দীগ্রাম পৌর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বুধবার দুপুরে থেকে শোক দিবসের বিভিন্ন কর্মসূচি আহবান করা হয়। কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে জেলা পরিষদ সদস্য এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রানা ও বিশেষ অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহর নাম ঘোষণা করা হয়।
অপর দিকে পৌর আওয়ামী লীগের ৯নম্বর ওয়ার্ড কমিটির পক্ষ থেকে একই স্থানে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে শোক দিবসের র‌্যালি ও আলোচনা সভার কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমানের নাম ঘোষণা করা হয়।
উভয় পক্ষ কর্মসূচি পালনের জন্য নিরাপত্তা ও অনুমতি চেয়ে থানার ভারপ্রাাপ্ত কমর্র্কতা বরাবর আবেদন করেন। এরপর বিষয়টি জানাজানি হলে উভয় গ্রুপের নেতা কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগকে পাশ কাটিয়ে পৌর আওয়ামী লীগ শোক দিবসের কর্মসূচি দিয়েছে। এটা মেনে নেয়া যায় না। এখন প্রশাসন হস্তক্ষেপ করে যা হবার তাই হবে।
অপরদিকে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনিছুর রহমান বলেন, আমাদের কর্মসূচি ভন্ডুল করতে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের মাধ্যমে কর্মসূচি দিয়ে বিশৃঙ্খলা করতে চায়। তাছাড়া গত ২৪ আগস্ট পৌর আ’লীগের উদ্যোগে ৮টি ওয়ার্ডের সভাপতি/সম্পাদককে নিয়ে বর্ধিত সভা ও মত বিনিময় করা হয়েছে। সে সভায় সর্বসন্মতিক্রমে এ কর্মসূচি দেওয়া হয়। এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি/সম্পাদককে মৌখিক ভাবে জানানো হয়েছে বলে তিনি জানান।
বগুড়ার নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শওকত কবির বলেন, দুই পক্ষকে বলা হয়েছে আলোচনা করে কর্মসূচির সময় পরিবর্তন করার জন্য। যদি তারা ব্যর্থ হয় তখন আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।