বগুড়ায় পৃথক দুটি ঘটনায় দুই জনের লাশ উদ্ধার

আপডেট: জুন ১২, ২০১৯, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

বগুড়া প্রতিনিধি


বগুড়ায় পৃথক দুটি ঘটনায় দুইজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার সকালে সদরের শাখারিয়া ইউনিয়ন ও দুপুরে নুনগোলা ইউনিয়নের পৃথক পৃথক জায়গা থেকে লাশদুটি উদ্ধার করা হয়। নিহতরা হলো বগুড়া সদর উপজেলার শাখারিয়া ইউনিয়নের কদিমপাড়ার শুকুর মাহমুদের ঘর জামাই খলিল মিয়া (৫০) ও নুনগোলা ইউনিয়নের হাজরাদিঘী গ্রামের রমজান আলীর ছেলে লালটু মিয়া (৩৮)। এদের মধ্যে খলিল হত্যার কারণ প্রাথমিকভাবে জানা গেলেও লালুট হত্যার কারণ জানা যায়নি।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দাদনের পাওনা টাকা পরিশোধ করতে না পারার জের ধরে বর্গাচাষি খলিলকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার রাতে দুর্বৃত্তরা খলিলকে বাড়ি থেকে কৌশলে ডেকে নিয়ে যায়। রাতে বাড়ি না ফেরায় খোজাখুঁজির এক পর্যায়ে মঙ্গলবার সকালে বাড়ির পাশের ডাঙ্গার বিলের পাট খেতে গলায় গামছা পেঁচানো খলিলের লাশ পাওয়া যায়।
অপরদিকে মঙ্গলবার দুপুরে হাজরাদীঘির মাঠে শ্যালো মেশিন ঘর থেকে শ্বাসরোধ করা লালটু মিয়ার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বগুড়া সদর থানার এসআই সুমন জানান, ধারনা করা হচ্ছে ৩/৪ দিন আগে লালটু মিয়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। তবে কি কারণে কারা লালটু মিয়াকে হত্যা করেছে তা এখনও জানা যায়নি। পুলিশ লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। বগুড়া সদরের ওসি এসএম বদিউজ্জামান জানান, দুটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সদর থানায় পৃথক দুটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। লিখিত অভিযোগ পেলে হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে।