বগুড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ ৩ জনের মৃত্যু

আপডেট: মে ২২, ২০১৮, ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

বগুড়া প্রতিনিধি


বগুড়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার শাজাহানপুর, শেরপুর ও রোববার সন্ধ্যায় ধুনটে দুর্ঘটনাগুলি ঘটে।
বগুড়ার শাজাহানপুরে অজ্ঞাতনামা একটি যাত্রীবাহী বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে হায়দার আলী (৫০) নামে এক ভাঙড়ি ফেরিওয়ালার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার মাঝিড়া মাছের আড়তের সামনে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে। হায়দার আলী গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। বর্তমানে উপজেলার মাঝিড়া এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে পরিবার সহ বসবাস করে আসছে। সে গ্রামে গ্রামে ভাঙড়ি ফেরিওয়ালার ব্যবসা করতো। প্রত্যেক্ষদর্শিরা জানান, সকাল ৮টার দিকে মাঝিড়া মাছের আড়তের সামনে নেককারের ভাঙড়ি দোকান থেকে মহাসড়কের পশ্চিম পাশ থেকে পূর্ব পাশে যাওয়ার সময় ঢাকার দিক থেকে আসা বগুড়াগামী একটি অজ্ঞাতনামা যাত্রীবাহী কোচের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায় হায়দার আলী।
থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘাতক বাসটি সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।
এদিকে বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় বিদ্যুতের খুঁটি বহনকারী একটি ট্রলি উল্টে চালক জাকারিয়া হোসেন (২৫) নিহত হয়েছেন। নিহত জাকারিয়া পাশের নন্দীগ্রাম উপজেলার বর্ষণগ্রামের আবু তালেবের ছেলে। গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের মির্জাপুর আমবাগান এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বগুড়া থেকে পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ কাজের জন্য ট্রলিযোগে খুঁটি নিয়ে যাওয়া হচ্ছিলো মথুরাপুর এলাকায়। পথিমধ্যে চালক ট্রলির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন এতে ট্রলিটি উল্টে মহাসড়কের পাশে একটি খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় ট্রলির চালক জাকারিয়া হোসেন। শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ওসমান গণি নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি দুর্ঘটনাকবলিত ট্রলি উদ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে।
এছাড়াও বগুড়ার ধুনটে অটোভ্যানের চাপায় পিষ্ট হয়ে মিলি খাতুন (৩) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গত রোববার সন্ধ্যা ৭টায় মথুরাপুর ইউনিয়নের কাশিয়াহাটা গ্রামে এঘটনা ঘটে। নিহত শিশু কাশিয়াহাটা পশ্চিমপাড়া এলাকার মিলন সরকারের মেয়ে।
স্থানীয় লোকজন জানায়, রোববার সন্ধ্যায় মিলন সরকারের মেয়ে মিলি আকতার বাড়ির সামনের রাস্তা পার হয়ে প্রতিবেশির বাড়িতে যাচ্ছিল। এসময় একটি অটোভ্যান মিলিকে ধাক্কা দিলে সে ভ্যানের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। সংবাদ পেয়ে সোমবার দুপুরে বগুড়া-৫ আসনের জাতীয় সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা হাবিবর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহত শিশুর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।