বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

বগুড়া সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নারের উদ্বোধন

আপডেট: December 6, 2019, 1:05 am

বগুড়া প্রতিনিধি


একুশ, স্বাধীনতা ও বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখক-গবেষক, আর্ন্তজাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ফোকলোরবিদ ও জাতীয় যাদু ঘরের মহাপরিচালক বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক সামসুজ্জামান খান বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ইতিহাস, সাহিত্য, সংস্কৃতিকে বুঝতেন। এসব নিয়েই তার রাজনীতি, পথচলা দেশ গঠন। এরকম মানুষ এদেশে কেন এই উপমহাদেশে পাওয়া যাবেনা। জহর লাল নেহেরু বা মহাত্মা গান্ধির উপরে শেখ মুজিবুর রহমানের স্থান। এটি একটি গবেষক বলেছেন। তিনি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গিলী। কেন তিনি শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী কোন ভাবেই দেশকে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীন সার্বভৌম ঐতিহাসিক ভাবে প্রতিষ্ঠিত দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেনি।
তিনি গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বগুড়া সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজের গ্রন্থগার ভবনে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্ণারের উদ্বোধন করেন। গোটা কর্নার জুড়ে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতার ঘোষণা, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার ইতিহাস ফুটিয়ে তোলাসহ এখানে স্থান পেয়েছে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার ওপর ৫ হাজারের মতো বই। এছাড়া রয়েছে ইতিহাস ও সাহিত্যের নানা ধারনের বই। তিনি বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে তা ঘুরে দেখেন।
মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক জোহরা ওয়াহিদা রহমানের সভাতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড.মো.বেল্লাল হোসেন, ও সম্মনিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন হেলেন জামান। স্বাগত বক্তব দেন বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক হাসিনা আকতার এছাড়া বক্তব্য রাখেন কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক দেবদুলাল দাস। উপস্থিত ছিলেন কলেজ ছাত্রলীগ নেত্রী শামিমা সুমি সাহা প্রমুখ।
প্রধান অতিথি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ না করলে স্বাধীনতা পরিপুর্ণ হয়না। কৈশোর থেকেই বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের অন্তুরে প্রথিত ছিলো দেশ স্বাধীনতার চিন্তাধারা। বঙ্গবন্ধুর মতো এই উপমহাদেশে দ্বিতীয় কেউ ছিলো না। কারণ তাঁর মতো কেউ গোটা জাতিকে একত্রিত করে অসহযোগ আন্দোলন করতে পারেননি। তিনি শিল্প ইতিহাস সাহিত্য সাংস্কৃতি সব কিছু মিলয়েই স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে পরিপুর্ন ভাবে জানতে পারলেই জীবনকে সার্থক করা যায়। তিনি দেশের ইতিহাস ও সাহিত্য পড়ে নিজদের অন্যন্যতা জানার আহবান জানিয়ে বলেন, বুদ্ধিবৃত্তিক উৎকর্ষতা ধারণ করতে পারলে প্রকৃত শিক্ষিত হওয়া যায়। তিনি নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু, দেশের স্বাধীনতা ও মহান মুক্তিযুদ্ধ সর্ম্পকে জানাতে আহবান জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ