বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচারের রায় বাংলার মাটিতে কার্যকর করা হবে : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

আপডেট: আগস্ট ২৫, ২০১৯, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ও চারঘাট প্রতিনিধি


পুরস্কার তুলে দেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, প্রফেসর আব্দুল খালেক ও আসাদুজ্জামান আসাদ -সোনার দেশ

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বলেছেন, ঘাতকরা বঙ্গবন্ধুর রক্ত চিরতরে বাংলাদেশ থেকে মুছে ফেলতে চেয়েছিল। তাই তারা ১৯৭৫ সালে তাঁকে সপরিবারে হত্যা করে। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের খুঁজে বের করে তাদের বিচারের রায় বাংলার মাটিতে কার্যকর করা হবে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেই তারা থেমে থাকেনি। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। এভাবে ২০ বারের বেশি সময় তাঁকে আক্রমণ করা হয়েছে।
গতকাল শনিবার বিকালে নগরীর শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান মিলনায়তনে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস ও গ্রেনেড হামলা দিবসের কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।
রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. আব্দুল খালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহা. আসাদুজ্জামান আসাদ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাবেক প্রতিমন্ত্রী জিনাতুন নেসা তালুকদার, সহসভাপতি আব্দুল মজিদ, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এমদাদুল হক মাস্টার, জেলা যুবলীগের সভাপতি আবু সালেহ ও ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব।
প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আরও বলেন, ষড়যন্ত্রকারীদের ভাবা উচিত সকল প্রদীপ নিভে গেলেও শেখ হাসিনার প্রদীপ কখনও নিভে যাবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করে আগামী প্রজন্মের জন্য বাংলাদেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন।
শিশুদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, শেখ মুজিবকে চিনলেই হবে না। তিনি কেমন মানুষ ছিলেন। তার আর্দশকে ধারণ করে আমাদেরকে সামনে এগিয়ে যেতে হবে।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতিকে সংগঠিত করে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিলেন উল্লেখ করে শাহরিয়ার আলম বলেন, পাকিস্তানের অসহ্য অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করে বাঙালি জাতিকে আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে ১৯৭১ সালে দীর্ঘ সংগ্রাম অতিক্রম করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ফিরিয়ে আনেন। যিনি এদেশের জন্য এত সংগ্রাম করেছিলেন তিনি কখনও ভাবেননি এদেশের লুকায়িত ঘাতকরা তাঁকে হত্যা করবে। তাদের প্রতি বঙ্গবন্ধুর একটা আত্মবিশ^াস ছিল।
সভা পরিচালনা করেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের উপদফতর সম্পাদক এবং কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা উপকমিটির সদস্য সচিব প্রভাষক শরিফুল ইসলাম। কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় মোট ১২১ জন শিক্ষার্থীকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।
চারঘাটে বিএমডি’র খাল পুনঃখনন কাজের উদ্বোধন : এদিকে এর আগে গতকাল দুপুরে রাজশাহী জেলার চারঘাট উপজেলার মেরামতপুর (কাকড়ামারী) থেকে পিরোজপুর পদ্মা নদী পর্যন্ত ২ দশমিক ১০ কিলোমিটার খাল পুনঃখনন কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতি হলো গরিব-দুঃখী মানুষের পাশে থাকার রাজনীতি। তিনি বলেন, তিনি মৃত্যুর ভয় করেন না, সকল বাঁধা অতিক্রম করে জনগণের জন্য কাজ করতে চান এবং সেলক্ষ্যেই এগিয়ে যাচ্ছেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, জোট সরকারের আমলে কৃষকরা সারের জন্য জীবন দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পরপরই সেই কৃষককে বিনামূল্যে সার, বীজ এবং কৃষি উপকরণ প্রদান করেছে। কৃষকের জন্য ভূর্তকি দিয়েছে। কারণ তিনি জানেন কৃষক বাঁচলে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়া যাবে।
তিনি আরও বলেন, পদ্মা সেতু প্রকল্পের কাজ শুরু হওয়ার আগেই গুজব উঠেছিল এখানে দুর্নীতি হচ্ছে। অথচ বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নেই পদ্মা সেতুর কাজ তর তর করে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের ভাগ্যোন্নয়নের রাজনীতি করে, বিএনপি জামাতের মত নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটানোর রাজনীতি শেখ হাসিনার সরকার করে না।
তিনি বলেন, মাদকের নেশায় যে সমাজ ধ্বংস হয়, সেই মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলায় যারা শহিদ হয়েছেন তাদের আত্মার শান্তির জন্য হামলার ষড়যন্ত্রকারীদের খুজে বের করে তাদের বিচার করা হবে।
রাজশাহী বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিএমডি) নির্বাহী পরিচালক মো. আব্দুর রশীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে চারঘাট উপজেলা চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, চারঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল হক, বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রকল্প পরিচালক নাজিরুল ইসলাম, চারঘাট পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল হক, সারদা ইউপি চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান মধুসহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
রাজশাহী বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রকল্পের দুই দশমিক দশ কিলোমিটার খাল প্রায় দুই কোটি টাকা ব্যয়ে পুন:খনন কাজ সমাপ্ত হবে।
চারঘাটে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন : গতকাল শনিবার সকালে বড়াল নদী সংলগ্ন উপজেলা কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার চত্বরে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম চারঘাটে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। ৫ তলা বিশিষ্ট এই ভবনের আপাতত ৩ তলা নির্মিত হবে। এতে ব্যয় হবে ২ কোটি ২৩ লাখ ৪৬ হাজার টাকা। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি) এই ভবনটি নির্মাণ করবে। ভবনের এক তলা ও দোতলায় দোকান এবং তিনতলায় অফিস হিসেবে ব্যবহার হবে বলে জানানো হয়।
ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের সময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী সানিউল হক, উপজেলা প্রকৌশলী মকবুল হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ নাজমুল হক, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মিজানুর রহমান আলমাস, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সস্পাদক একরামুল হক প্রমূখ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ