বাংলাদেশে উজবেকিস্তানের ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য বৃদ্ধির উপায় খুঁজছেন ব্যবসায়ীরা

আপডেট: জানুয়ারি ২৯, ২০১৮, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশ ও উজবেকিস্তানের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধির সম্ভাব্য উপায় নিয়ে আলোচনা করেছেন দুই দেশের সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা। অন্যদিকে বাংলাদেশের বস্ত্র খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ দেখিয়েছেন উজবেক ব্যবসায়ীরা। কমনওয়েলথ অব ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্টেটস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিআইএস-বিসিসিআই) ও বাংলাদেশ গার্মেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিজিএমইএ) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
সিআইএস-বিসিসিআই জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার উজবেকিস্তান থেকে আসা ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল ও ই-কমার্সনির্ভর ক্রেতা-বিক্রেতা যোগাযোগ প্রতিষ্ঠান কুবি হোল্ডিংসের সঙ্গে একটি দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হন সিআইএস-বিসিসিআইয়ের প্রতিনিধিরা। সংগঠনটির সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে সফরকারীদের পক্ষে নেতৃত্ব দেন কুবি হোল্ডিংয়ের আন্তর্জাতিক বিষয়ক পরিচালক মরিয়ম কানাতবেকোবা। সিআইএস-বিসিসিআই সভাপতি মো. হাবীব উল্লাহ ডনের সভাপতিত্বে বৈঠকে চেম্বারের পরিচালক এবং সংগঠনটির পোশাক ও ওষুধ শিল্পসংশ্লিষ্ট সদস্যরা অংশ নেন।
সিআইএস-বিসিসিআই জানিয়েছে, বৈঠকে বাংলাদেশ ও উজবেকিস্তানের মধ্যকার পারস্পরিক স্বার্থ ও দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য বৃদ্ধির উপায় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে আগ্রহ দেখিয়েছে উজবেক প্রতিনিধি দল। এছাড়া ওয়্যারহাউজ সুবিধা নিয়েও উভয়পক্ষের মধ্যে আলোচনা হয়। সিআইএস-বিসিসিআইয়ের পোশাক, ওষুধ ও কৃষি প্রক্রিয়াজাত পণ্য রফতানির সঙ্গে সম্পৃক্ত সদস্যরা কুবি হোল্ডিংকে উজবেকিস্তানের বাজারে বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের বাণিজ্য সহজীকরণের উদ্যোগ নিতে বলেন। এ দেশের ব্যবসায়ীরা যেন উজবেকিস্তানের বাজারে বাণিজ্য বৃদ্ধির আরো বেশি সুযোগ পান, সে লক্ষ্যে কাজ করতে কুবি হোল্ডিংয়ের প্রতি আহ্বান জানান তারা।
মো. হাবীব উল্লাহ ডন বলেন, সিআইএস-বিসিসিআই হলো এ দেশের একমাত্র চেম্বার, যেটি সিআইএসভুক্ত ১১টি দেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য সম্প্রসারণে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের লক্ষ্য হলোÍ রাশিয়াসহ সিআইএসভুক্ত দেশগুলোকে তৃতীয় রফতানি বাজার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা।
এদিকে উজবেকিস্তানের ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশের বস্ত্র খাতে বিনিয়োগের ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন। গতকাল দেশটির ফার্স্ট ডেপুটি মিনিস্টার অব ইকোনমি, মুবিন মিরজায়েভের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সফররত উজবেকিস্তানের ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল বিজিএমইএ কার্যালয়ে সংগঠনটির নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে এ আগ্রহ প্রকাশ করেন। বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সহসভাপতি (অর্থ) মোহাম্মদ নাছির, সহসভাপতি মাহমুদ হাসান খান বাবু, পরিচালক মো. আশিকুর রহমান তুহিন, মো. মুনির হোসেন, মো. আতিকুল করিম খান লিপু প্রমুখ।
বৈঠকে বাংলাদেশের জাতীয় অর্থনীতিতে পোশাক শিল্পের অবদানসহ এ শিল্পের বিভিন্ন দিক পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপন করা হয়। এ সময় উজবেক প্রতিনিধি দলটি বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে। দলের সদস্যরা বলেন, তারা বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের জন্য ফ্যাব্রিকস ও অ্যাক্সেসরিজ রফতানি করতে চান। পাশাপাশি তারা এ দেশের বস্ত্র খাতে বিনিয়োগের আন্তরিক আগ্রহ প্রকাশ করেন। এ ব্যাপারে তারা বিজিএমইএর সহযোগিতা কামনা করেন। তারা বিজিএমইএর নেতাদের উজবেকিস্তানে পোশাক কারখানা স্থাপনেরও আহ্বান জানান। তারা বলেন, বাংলাদেশের উদ্যোক্তারা উজবেকিস্তানে বিনিয়োগ করলে সেখানে তাদের বিনামূল্যে জমি, স্বল্পব্যয়ে বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ দেয়া হবে।
বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, বাংলাদেশের বস্ত্র খাতের একটি রেডি মার্কেট রয়েছে। তাই উজবেকিস্তানের ব্যবসায়ীরা এ খাতে বিনিয়োগ করলে বেশ লাভবান হবেন। বৈঠকে ভবিষ্যতে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে ঐকমত্য প্রকাশ করা হয়। এ সময় জানানো হয়, উভয় দেশের ব্যবসায়ীরা বিনিয়োগ সম্ভাব্যতা যাচাই করবেন। শিগগিরই বিজিএমইএর একটি প্রতিনিধি দল উজবেকিস্তান পরিদর্শনে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন দেশটির ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা। তথ্য সূত্র: বনিক বার্তা