বাংলাদেশ ফেবারিট বলেই আত্মবিশ্বাসী সুজন

আপডেট: মে ১৭, ২০১৯, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ত্রিদেশিয় সিরিজের ফাইনালে শুক্রবার মুখোমুখি হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বাংলাদেশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দুবার ও আয়ারল্যান্ডকে একবার হারিয়ে বাংলাদেশ উঠেছে ফাইনালে। পুরো সিরিজে বাংলাদেশ অপ্রতিরোধ্য। খেলেছে অলআউট ক্রিকেট। মূল একাদশের ক্রিকেটারদের পাশাপাশি সাইড বেঞ্চের ক্রিকেটাররাও রয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে। তাইতো ফাইনালে বাংলাদেশকে ফেবারিট মানছেন জাতীয় দলের প্রাক্তন অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। আর ফেবারিট বলেই প্রথমবারের মতো কোনো ফাইনাল জিততে আত্মবিশ্বাসী তিনি।
২০০৯ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত যেকোনো ফরম্যাট, যেকোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে ছয়বার খেলেছে বাংলাদেশ। কিন্তু কোনোবারই শিরোপা জিততে পারেনি বাংলাদেশ। এশিয়ার তিন পরাশক্তি ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার কাছে ফাইনাল হেরেছে বাংলাদেশ। এবার এশিয়ার কোনো দল নেই। প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যাদের বিপক্ষে সাম্প্রতিক রেকর্ড বেশ ঈর্ষণীয়। তাই শিরোপা ঘরে তোলার স্বপ্নে বিভোর বাংলাদেশ।
খালেদ মাহমুদ সুজন মনে করেন, শেষ ছয় ফাইনালে আন্ডারডগ হিসেবে খেলেছে বাংলাদেশ। এবার মাঠে নামছে ফেবারিট তকমা গায়ে মেখে। তাই শিরোপা জয়ের সম্ভাবনাও বেশি।
‘ফাইনাল হারাটা সব সময়ই কষ্টের, কাছাকাছি গিয়ে হারাটা আরো কষ্টের। প্রথম যখন ২ রানে আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে হারলাম তখনও বড় দুঃখের একটা ব্যাপার ছিল। ওখান থেকে আমরা অনেক শিখেছি। আগে যেসব ফাইনাল হেরেছি সেখানে আন্ডারডগ ছিলাম এবার মনে হচ্ছে আমরা ফেবারিট আয়ারল্যান্ড সিরিজে। বাংলাদেশ দল খেলছেও ফেবারিটের মতো। ভাগ্যটা গুরুত্বপূর্ণ তবে স্কিলের মাধ্যমে আমরা হয়তো ভাগ্যকে জয় করতে পারব’- বলেছেন খালেদ মাহমুদ।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচে সৌম্য সরকার ছিলেন দুর্দান্ত। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তাকে বিশ্রাম দিয়ে খেলানো হয় লিটন কুমার দাসকে। লিটনও সুযোগটি ভালোভাবে কাজে লাগিয়েছেন। পেয়েছেন হাফ সেঞ্চুরি। ফাইনালে ওপেনিংয়ে তামিমের সঙ্গী হিসেবে লিটন ও সৌম্য দুজনই সমান দাবিদার। দুজনের মধ্যেই চলছে প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতা দলের জন্য ইতিবাচক বলে মনে করছেন সুজন।
‘মধুর সংকট। নিঃসন্দেহে আমরা তো সেরা খেলোয়াড়কে পিক করব। সবার মধ্যে সুস্থ একটা প্রতিযোগিতা চলছে সেটা ভালো। সবাই পারফর্ম করছে এসব পুরো দলকেই জাগিয়ে তুলবে বলে আমি মনে করি। লিটন ভালো খেললেও আমার মনে হয় সৌম্যকে খেলাবে’- যোগ করেন তিনি।