বাঘায় ঈদকে সামনে রেখে জমে উঠেছে দর্জির দোকান

আপডেট: জুন ৪, ২০১৮, ১:৪৩ পূর্বাহ্ণ

আমানুল হক আমান, বাঘা


ঈদ উপলক্ষে ব্যস্ত সময় পার করছেন বাঘার দর্জিরা-সোনার দেশ

রাজশাহীর বাঘায় ঈদকে সামনে রেখে দর্জি দোকানগুলোতে ভিড় শুরু হয়েছে। সেই সাথে দর্জির কারিগররা ব্যস্ত সময় পার করছেন। ভোর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলছে নতুন পোশাক তৈরির কাজ। ঈদের দিন যতই এগিয়ে আসছে, ততই ব্যস্ত হয়ে পড়ছে দর্জি কারিগররা।
উপজেলার আড়ানী পৌর বাজারের আবদুর রাজ্জাক প্লাজায় স্টুডেন্ট টেইলার্সের মালিক ইনরান হোসেন জানান, ১০ রোজা পর থেকে ভিড় শুরু হয়েছে। এক সপ্তার মধ্যে নতুন অর্ডার বন্ধ করে দিতে হবে। বন্ধ না করলে ঈদের আগে তৈরি পোশাক ডেলিভারি দেয়া সম্ভব হবে না। তবে সর্বচ্চ ২০ রমজান পর্যন্ত নতুন অর্ডার নেয়া সম্ভব হবে।
আবদুর রাজ্জাক প্লাজায় ফাইভ স্টার টেইলার্সের মাস্টার আবদুল কুদ্দস জানান, তিন প্রায় ২০ থেকে ২৫ রমজান পর্যন্ত অর্ডার নিয়ে থাকেন। তার টেইলার্সে অর্ডার আসতে শুরু করেছে। তার টেইলার্সে, কামিজ, ফ্রক, ছাট কামিজ, বাচ্চাদের লেহেঙ্গা, জিপসি, আনার কলির জিপসি অর্ডার পাচ্ছেন। এছাড়া কাজের ধরণ অনুযায়ী অর্ডার নেয়া হয়।
স্টুডেন্ট টেইলার্সে অর্ডার দিতে আসা দিঘা স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক গোলাম তোফাজ্জল কবীর জানান, রেডিমেড শার্ট-প্যান্ট ভালো লাগে না। তাই ঈদ উপলক্ষে শার্ট-প্যান্ট তৈরির অর্ডার দিতে দর্জির দোকানে এসেছি। ঈদের দিন যতই এগিয়ে আসছে, ততই উপজেলা দর্জির দোকানগুলোতে বাড়ছে গ্রাহকদের ভিড়।