বাঘায় ছাত্রীকে কুপ্রস্তাবের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক আটক

আপডেট: February 20, 2020, 1:30 am

বাঘা প্রতিনিধি


রাজশাহীর বাঘায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে কুপ্রস্তাবের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে পুলিশ আটক করেছে। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।
জানা যায়, বাঘা উপজেলার চন্ডিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম তার প্রতিষ্ঠানের দশম শ্রেণির ছাত্রীকে প্রায় আপত্তিকর কথা বার্তা বলতো। এছাড়া বিভিন্ন ভালো পরামর্শ দিয়ে পরীক্ষায় বেশি নম্বর দেয়ার প্রলোভন দেয়। এক পর্যায়ে ১৬ ফেব্রুয়ারি ওই বিদ্যালয়ের আয়া জরিনা বেগমের মাধ্যমে ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেয়। এই প্রস্তাবে ছাত্রী রাজি না হওয়ায় স্কুল থেকে বহিস্কার করার হুমকি দেন প্রধান শিক্ষক। ওই ছাত্রী নিরুপায় হয়ে তার পরিবারকে বিষয়টি অবগত করে। ঘটনাটি মৌখিকভাবে ১৭ ফেব্রুয়ারি উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দফতরের প্রধানকে অবগত করা হয়। তাদের পরামর্শে ১৮ ফেব্রুয়ারি ছাত্রীর পরিবার থেকে একটি থানায় অভিযোগ করা হয। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে বাঘা থানার পুলিশ বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়েছে। এছাড়াও ওই ছাত্রীর অভিভাবক জেলা প্রশাসক, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছেও লিখিত অভিযোগ করেন। প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম চন্ডিপুর গ্রামের মৃত বয়াত আলীর ছেলে।
এ বিষয়ে চন্ডিপুর উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও বাজুবাঘা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান ফজল বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। বিষয়টি পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বলেন, এই বিষয়ে একটি অনুলিপি কপি পেয়েছি। আমার দফতর থেকে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।