বাঘায় ঝড়ে আমের ক্ষতি ২৫ কোটি টাকা

আপডেট: মে ১৫, ২০১৯, ১২:৫৭ পূর্বাহ্ণ

আমানুল হক আমান, বাঘা


রাজশাহীর বাঘায় কালবৈশাখী ঝড়ে আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। চাষিদের এ ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ২৫ কোটি টাকা।
জানা গেছে, বাঘায় চলতি মৌসুমে আট হাজার ৩৬৮ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। চলতি মৌসুমে উৎপাদন ধরা হয়েছে হেক্টর প্রতি ৮ মেট্্িরক টন। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কালবৈশাখী ঝড়ে আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস দাবি করছেন বিভিন্ন বাগানে ১ শতাংশের বেশি আম ঝড়ে গেছে। আর চাষিরা দাবি করছেন ৫ শতাংশের বেশি আম ঝরে গেছে। এ আম দেড় টাকা থেকে ৩ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।
উপজেলার মনিগ্রামের জিল্লুর রহমান বলেন, এবার লিজ নিয়ে আমের চাষ করেছি। ঝড়ে বাগানের যে পরিমাণ আম পড়েছে তা সঠিক সময়ে প্রায় ৫ লাখ টাকা বিক্রি হতো। তবে আমার বাগানে গড় প্রায় ৫ শতাংশের মতো আম ঝড়ে গেছে।
আড়পাড়া গ্রামের বাগান মালিক আনোয়ার হোসেন পলাশ বলেন, আম বিক্রির টাকা দিয়েই সারা বছর সংসার চলে। এই ঝড় পথে বসিয়ে দিয়ে গেছে।
আম ব্যবসায়ী মনা হোসেন বলেন, ঝরে পড়া আম দেড় টাকা থেকে ৩ টাকা কেজিতে কিনে ঢাকায় পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছি।
শুধু মনা হোসেন নয়, তার মতো অনেক ব্যবসায়ী ঝরে পড়া আম কিনে ট্রাকে করে দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্রির জন্য পাঠাচ্ছেন।
আড়ানী গোচর গ্রামের ১৩ বছর বয়সের শান্ত বলেন, ঝরে পড়া আম কুড়িয়ে সাড়ে তিন মণ আম বিক্রি করেছি দুই টাকা কেজি দরে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিউল্লা সুলতান বলেন, এ ঝড়ে উপজেলায় মাত্র ১ শতাংশের মতো আম ঝরে গেছে। এ আম নির্ধারিত সময় পর্যন্ত থাকলে তা প্রায় ২ কোটি টাকায় বিক্রি করা সম্ভব হতো। তবে গাছে এখনও প্রচুর আম রয়েছে। ঝড় বা প্রাকৃতিব দুর্যোগ আর না হলে এই ক্ষতির পরও বাগান মালিক ও আম উৎপানকারীদের পুষিয়ে যাবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ