বাঘায় পটকা ফোটানোর অপরাধে ৩ শিশুকে পিটিয়েছে সেই এসিল্যান্ডকে পেটানো নওশাদ

আপডেট: জুন ১১, ২০১৯, ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ

বাঘা প্রতিনিধি


রাজশাহীর বাঘায় পটকা ফোটানোর অপরাধে ৩ শিশুকে পিটিয়েছে সেই এসি-ল্যান্ডকে পেটানো নওশাদ আলী। গতকাল সোমবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।
জানা যায়, ওই গ্রামের সোহেল রানার ছেলে শারীরিক প্রতিবন্ধী হৃদয় হোসেন (১২), তার মামাত ভাই চকছাতারী গ্রামের ইমরান আলীর ছেলে আবির হোসেন (১৩), আরেক মামাত ভাই উত্তর মিলিক বাঘা গ্রামের শাজাহান আলীর ছেলে শাকিবুল হোসেন (১২) এক সঙ্গে বাড়ির পাশে পটকা ফোটাচ্ছিল ও চিৎকার করছিল। এ সময় সেই এসি-ল্যান্ডকে পেটানো নওশাদ আলী বাড়ির মধ্যে থেকে এসে ওই তিন শিশুকে পিটিয়ে আহত করে। আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
বাঘা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক আতিক মাহমুদ জানান, শিশুদের অতিরিক্ত মারপিটের কারণে তারা বেশ কয়েকবার বমি করেছে। তবে তারা সুস্থ হতে বেশ কিছু দিন সময় লাগবে।
এ বিষয়ে নওশাদ আলী বলেন, ক্লান্ত শরীর নিয়ে ঘরে বিশ্রাম নিচ্ছিলাম। এ সময় তিন শিশু আমার বাড়ির আঙ্গিনায় এসে পটকা ফোটাচ্ছিল ও চিৎকার করছিল। তাদের বারবার নিষেধ করার পর কথা না শুনায় তাদের দু/একটি চড় থাপ্পর মেরছি। তবে প্রতিবেশিরা হিংসায় তিলকে তাল করার চেষ্টা করছে।
প্রতিবন্ধী শিশু হৃদয় আলীর মা সাথী খাতুন বলেন, নওশাদ আলী কারণে অকারণে আমাদের বিভিন্ন সময় নির্যাতন করে। আমরা গরিব মানুষ তাই এমন কাজ করে। আমরা ভয়ে প্রতিবাদ করতে পারি না। আমার প্রতিবন্ধী শিশুসহ তাদের যে মারপিট করা হয়েছে, আপনাদের মাধ্যমে বিচার প্রার্থনা করছি।
বাঘা থানার ওসি মহসীন আলী বলেন, এ ঘটনাটি শুনেছি। অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য, এবছর ১৯ জানুয়ারি উপজেলার আলাইপুর-হরিরামপুর পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ঘটনায় কাগজপত্র দেখতে যান সাবেক বাঘা উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) পিএম ইমরুল কায়েস। এ সময় নওশাদ আলী ও তার লোকজন তাকে বেধম মারধর করে। এ সময় এস্যিান্ডকে রক্ষার জন্য তার দুই কর্মচারী এগিয়ে আসলে তাদেরও মারপিট করা হয়। এ ঘটনায় ভূমি অফিসে এক কর্মচারী বাদি হয়ে নওশাদ আলীকে প্রধান আসামি করে বাঘা থানায় মামলা দায়ের করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ