বানেশ্বরে আম নিয়ে যানজটে ক্লান্তি নেই যাত্রীদের

আপডেট: জুন ৫, ২০১৮, ১:৫৭ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


রাজশাহীর বানেশ্বরহাটে জমে উঠেছে আমের বেচাকেনা। দেশে আমের রাজধানী হিসেবে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বেরহাট সকলের কাছে পরিচিত। রাজশাহীর সবচেয়ে বড় আমের হাট বসে এখানে। ২০ মে প্রশাসনের নিয়ম অনুযায়ী রাজশাহীর কৃষকরা আমপাড়া শুরু করে। হাটে আস্তে আস্তে বাড়তে থাকে আমের ভ্যানগুলো। গত সপ্তাহ থেকে এখন আমের পরিমাণ অনেক বেশি। ব্যবসায়ীদের কাছে থেকে জানা যায়, গত হাটে ১০ থেকে ১২ ট্রাক আম ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় গিয়েছে। কিন্তু গতকাল সোমবার ছিল ভিন্ন চিত্র। হাটের নির্ধারিত স্থান থেকে আমের গাড়িগুলো ঢাকা রাজশাহী মহাসড়কের অর্ধেক জায়গা দখল করে নিয়েছে। ফলে বেড়েছে যানজট- দুর্ভোগ। এর ফলে ৫ মিনিটের রাস্তা পারাপার হতে পুরো ৩০ থেকে ৪০ মিনিট লাগছে। তবে যানজটকে বিরক্তিকর হিসেবে নিচ্ছেন না রাস্তায় পরিবহনের যাত্রী। তারা যেতে যেতে হাটের আম বেচা বিক্রি দেখছেন। বানেশ্বর হাটের আম ব্যবসায়ী সাদেক আলী জানান, গত সপ্তাহ থেকে এখন অনেক বেশি আম আসছে। এখন প্রতিদিন প্রায় ৫০ থেকে ৫৫ ট্রাক আম উঠছে। এর ফলেই এখানকার নির্ধারিত জায়গা থেকে আমের ভ্যানগুলো মহাসড়কে উঠতে বাধ্য হচ্ছে। এখানে পর্যাপ্ত জায়গা নেই আমের গাড়ি রাখার।
আম ব্যবসায়ীরা জানান, এখানে রাজশাহীর বিভিন্ন উপজেলার মধ্যে পুঠিয়া, দুর্গাপুর, বাঘা, চারঘাট, বাগমারা, কাটাখালি, বেলপুকুরসহ রাজশাহীর বিভিন্ন জায়গা থেকে আম আসছে।
পুঠিয়া শিবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমরা যানজট এড়াতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জানান, আগের থেকে এখন আমের গাড়িগুলো একটু বেশি আসছে। ফলে যানজট হচ্ছে। তবে আমরা এই যানজট এড়াতে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছি। বানেশ্বর গরুহাটে অতিরিক্ত গাড়িগুলোকে রাখার ব্যবস্থা নিয়েছি। আগামীকাল (মঙ্গলবার) থেকে পুলিশের সাথে আমাদের একটি টিম যানজট এড়াতে অতিরিক্ত গাড়ি নির্ধারিত স্থানে পাঠানোর ব্যবস্থা নিতে কাজ করবে। ট্রাফিক পুলিশের মোবাইল টিম তাদের সহোযোগিতা করবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ