বাড়ি নির্মাণে ৭৫ শতাংশ ঋণ পাবেন প্রবাসীরা

আপডেট: জুলাই ২৪, ২০১৭, ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


প্রবাসী বাংলাদেশিরা দেশে বাড়ি নির্মাণ বা ফ্ল্যাট কিনতে মোট খরচের ৭৫ শতাংশই ব্যাংক থেকে ঋণ নিতে পারবেন। রোববার এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের জানিয়ে দেয়া হয়েছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্র জানায়, কোনো প্রবাসী বাংলাদেশে ১ কোটি টাকা মূল্যে বাড়ি কিনতে চাইলে তিনি ২৫ লাখ টাকা রেমিট্যান্স পাঠাবেন। বাকি ৭৫ লাখ টাকা ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়ার সুযোগ পাবেন। এতদিন ১ কোটি টাকা মূল্যে বাড়ি কিনতে বা নির্মাণে তার ৫০ লাখ টাকা ঋণ নেয়ার সুযোগ ছিল। অর্থাৎ মোট খরচের অর্ধেক (৫০ : ৫০) ঋণ নেয়ার সুযোগ ছিল।
সূত্র জানায়, ২০১৫ সালে ডিসেম্বরে এক সার্কুলারের মাধ্যমে দেশের ব্যাংক থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য গৃহঋণ নেয়ার সুযোগ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। ওই সময় ভোক্তা ঋণ নীতিমালার আওতায় বাড়ি বা ফ্ল্যাট কেনায় মোট ব্যয়ের ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ঋণ নেয়ার সুযোগ ছিল। ওই সার্কুলারের আগ পর্যন্ত প্রবাসীদের যেকোনো ঋণ নিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পূর্বানুমতি নিতে হতো।
তবে প্রবাসীদের ভোক্তা ঋণ নীতিমালার আওতায় ঋণ নিতে হবে। ওই নীতিমালা অনুসারে ঋণ নিজস্ব অর্থায়নের অনুপাত ৭৫ : ২৫ হলেও ব্যাংক থেকে সর্বোচ্চ ১ কোটি ২০ লাখ টাকা ঋণ নেয়ার সুযোগ রয়েছে।
আগের জারি করা নিয়মানুসারে, বিদেশি উৎস থেকে আয়ের বিপরীতে ঋণের অর্থ পরিশোধ করা যাবে। এক্ষেত্রে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনকারী ব্যাংক শাখায় প্রবাসীর পরিচালিত অ্যাকাউন্টে অর্থ পাঠিয়ে কিস্তি পরিশোধ করতে পারবেন তিনি। আবার কেউ চাইলে বাসা ভাড়া থেকে পাওয়া অর্থের বিপরীতে ঋণ পরিশোধ করতে পারবেন। এডি ব্যাংকগুলো ইচ্ছা করলে অতিরিক্ত মর্টগেজ নেবে। তৃতীয় পক্ষকে গ্যারান্টার হিসেবেও রাখতে পারবে।