বিজ্ঞাপনদাতাদের ভুল তথ্য দেয় ফেসবুক?

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৭, ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিজ্ঞাপন কতজন মানুষের কাছে পৌঁছাবে তা নিয়ে ফেসবুক যে সম্ভাব্য ডেটা দেয় তা মার্কিন শুমারির ডেটার সঙ্গে মেলে না, মঙ্গলবার এ তথ্য প্রকাশ করেছেন এক বিনিয়োগ বিশ্লেষক।
এই তথ্য প্রকাশের মাধ্যমে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের ডিজিটাল বিপণন জায়গার মূল্যায়ন যাচাই করে তা নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন উঠেছে, বলা হয়েছে রয়টার্স-এর প্রতিবেদনে।
কতজন মানুষ অনলাইনে বিজ্ঞাপন দেখছেন আর কীভাবে তাদের দেখার বিষয়টি মাপা হচ্ছে তা নিয়ে বিজ্ঞাপনদাতাদের অব্যাহত নজরদারির মধ্য দিয়ে যেতে হয় অ্যালফাবেট অধীনস্থ গুগল, ফেসবুক ও অন্যান্য ইন্টারনেট প্রতিষ্ঠানগুলোকে। ফেসবুকের বিজ্ঞাপন ক্রয় ওয়েবসাইট বিজ্ঞাপনদাতাদের বলে, বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক মাধ্যমটিতে বিজ্ঞাপন দিলে তা যুক্তরাষ্ট্রে ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়স্ক ৪.১০ কোটি মানুষের কাছে পৌঁছানোর সম্ভাবনা রয়েছে। তবে, যুক্তরাষ্ট্রের শুমারির ডেটা অনুযায়ী ২০১৬ পর্যন্ত হিসাবে দেশটিতে এই বয়সের মানুষ আছেন ৩.১০ কোটি, বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান পিভোটাল রিসার্চ গ্রুপ-এর জ্যেষ্ঠ বিশ্লেষক ব্রায়ান ওয়াইজার এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।
এদিকে ফেসবুকের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, তাদের দর্শক হিসাব শুমারির ডেটার সঙ্গে মিলে না। কিন্তু এটি এমনভাবে বানানো যে, ‘পৌঁছানোর সংখ্যা দিয়ে কোনো ব্যবসায় যে এলাকায় চলতে পারে সেখানে কতজন মানুষ এটি দেখতে পারবেন তার হিসাব করা হয়’। এই সংখ্যা জনসংখ্যা বা শুমারির হিসাবের সঙ্গে মিলবে এমনভাবে হিসাব করা নয়।
ফেসবুকের ব্যবহারকারীরা নিজেরাই নিজেদের বয়সের তথ্য দিয়ে থাকেন। এ কারণে এটি শুমারির তথ্য থেকে আলাদা হতে পারে। প্রতিষ্ঠানটি তাদের পোঁছানোর সংখ্যা হিসাবে স্থানের ডেটাও ব্যবহার করে থাকে। এর মানে হচ্ছে কোনো স্থানের পর্যটক আর অন্যান্য ব্যবহারকারীদেরও এই হিসাবের মধ্যে ধরা হয়।
চলতি বছর জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের অধিবাসী নন এমন ৫৬ লাখ মানুষ দেশটির ভ্রমণ করেছেন। এটিই এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত সর্বশেষ ডেটা।