বিদেশি মিশনগুলোতে নজরদারি চান এনবিআর চেয়ারম্যান

আপডেট: জানুয়ারি ৩০, ২০১৭, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের মিশনগুলোর কার্যক্রম তদারকির জন্য একটি ‘মহা পরিদর্শক’ পদ সৃষ্টির আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।
বাংলাদেশকে বিনিয়োগবান্ধব করতে হবিগঞ্জের বাহুবলে আয়োজিত দুই দিনব্যাপী ‘কৌশলগত কর্মশালার’ দ্বিতীয় দিনের এক সেশনের আলোচনায় তিনি এ প্রস্তাব করেন।
নজিবুর রহমান বলেন, “বিভিন্ন মিশনে আমার কাজের অভিজ্ঞতা থেকে আমি বলব যে, সরকারের উচিত মিশনগুলোর সামগ্রিক কার্যক্রম তদারকির জন্য ইনসপেকটর জেনারেল হিসেবে কাউকে নিয়োগ দেওয়া।” প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তা নজিবুর কর্মজীবনে মিয়ানমার, ভিয়েতনাম ও নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশ মিশনেও দায়িত্ব পালন করেছেন।
চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল খালেদা ইকবাল বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে বাংলাদেশকে ‘ব্যান্ডিংয়ের’ জন্য মিশনগুলোকে কাজে লাগানোর পরামর্শ দিলে নজিবুর রহমান ওই প্রস্তাব করেন।
বাংলাদেশে ব্যবসা করার পরিবেশ উন্নত করতে কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণে বাহুবলের একটি রিসোর্টে শুক্রবার থেকে দুই দিনের কর্মশালা আয়োজন করে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-বিডা।
‘ইমপ্রুভিং বিজনেস ক্লাইমেট ফর ইনক্রিসড প্রাইভেট ইনভেস্টমেন্ট ইন বাংলাদেশ: কি ইস্যুজ, প্রায়োরিটিজ অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিস’ শিরোনামের এই কর্মশালায় সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, দফতরের শীর্ষ কর্মকর্তারা অংশ নেন। ছিলেন বেসরকারি সংস্থা ও উন্নয়ন অংশীদারদের শীর্ষ কর্তাব্যক্তিরাও।
ব্যবসার পরিবেশ উন্নয়ন, শিল্প খাতে বেসরকারি উদ্যোগকে সহায়তা এবং বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি নিয়ে তিনটি সেশনে হয় এই কর্মশালা।
বাংলাদেশকে বিনিয়োগবান্ধব হিসেবে গড়ে তুলতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও দপ্তরের একযোগে কাজ করার অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে শনিবার এই কর্মশালার শেষ হয়।
বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের ‘ডুয়িং বিজনেস ২০১৭’প্রতিবেদনে ব্যবসা করার পরিবেশের দিক দিয়ে বিশ্বের ১৯০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৭৬ নম্বরে। গতবছর এ সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৭৮ নম্বরে।
বিশ্ব ব্যাংকের ব্যবসায় পরিবেশের সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ২০২১ সালের মধ্যে ৭৬ ধাপ এগিয়ে প্রথম ১০০ দেশের তালিকায় আনার লক্ষ্েয কাজ করছে নতুন গঠিত কর্তৃপক্ষ বিডা।
কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে সরকারের শীর্ষ কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম বলেন, “এখন থেকে আমাদের নতুন যুগের শুরু- এ যুগ উৎকর্ষের খোঁজের, আমাদের চারপাশের জগতের উন্নয়ন অনুসন্ধানের, বিশেষত ব্যবসা ও বিনিয়োগের জগতের শ্রেষ্ঠতা সন্ধানের।”