বিবর্তনের আলোয় সংগ্রহের ইতিহাস

আপডেট: মার্চ ১৩, ২০১৯, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

রাবি সংবাদদাতা


১৯ শতক থেকে বিশ শতকের মধ্যবর্তী সময়ের জনপ্রিয় লেখকদের বইয়ের প্রচ্ছদ, সিনেমার প্রচ্ছদ, লেখার পা-ুুলিপি, শত বছরের পুরাতন ব্যাংক চেক স্তরে স্তরে সাজানো রয়েছে একটা টেবিলে। তার পাশেরটাতে রয়েছে, সমসাময়িক নেতাদের অটোগ্রাফ সংবলিত কাগজ, চিঠি, দেশলাই বক্সের প্রচ্ছদ, ডাকটিকিট। আর অন্যটিতে কলকাতার বাংলা পত্রিকায় ছাপা হওয়া ঐতিহাসিক সব তথ্য। দুই বাংলার বিবর্তনের ইতিহাসের বিরল প্রায় সব তথ্যের রয়েছে সেখানে। বিশেষ প্রদর্শনী উল্লেখ্য করে যার নাম দেয়া হয় ‘বিবর্তনের আলোয় সংগ্রহের ইতিহাস‘।
রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের ছোট কাগজ চিহ্ন আয়োজিত লেখক, পাঠক, সম্পাদকদের দুইদিন ব্যপী মিলনমেলার একটি বিশেষ আকর্ষণ ছিলো এটি। ‘কলকাতা থকতা‘ নামের একটি গ্রুপ তথ্যগুলো প্রদর্শন করেন।
গ্রুপ প্রধান গোপাল বিশ^াস বলছিলেন, কলকাতা বিপ্লব থেকে শুরু করে সবকিছুই আছে সংগ্রহতে। প্রায় ৩০ হাজার সংগ্রহ আছে তার কাছে। কি কি জিনিস আছে তার হিসেব বলতে পারবো না। এই প্রদর্শনীতে আমরা বাংলাদেশকে ফোকাস করেছি। রবীন্দ্রনাথ, নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর স্মৃতি বিজড়িত সংযুক্তি, বাংলাদেশের স্বাধীনতাকালীন পত্রিকা, পুরোনো বাংলা সিনেমা ও থিয়েটারের বুকলেট, কলকাতার কাগজে মুক্তিযুদ্ধের খবর এরকম বিভিন্ন বিষয় স্থান পেয়েছে এই প্রদর্শনীতে।
সবমিলিয়ে প্রায় ২০ থেকে ২৫ রকমের বিভিন্ন বিষয় সংগ্রহ করেন বলে উল্লেখ করেন গোপাল বিশ^াস। তিনি কলকাতার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব দূর্গাপুর থেকে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পাশ করেন। ইতিহাসের এমন বিভিন্ন বিষয়গুলো সংগ্রহের জন্য ২০০৭ ইঞ্জিনিয়ারিং প্রতিষ্ঠানের চাকুরি ছেড়ে দেন। চাকরি করার সময় থেকেই সংগ্রহের কাজ শুরু হয় তার। চাকরি ছেড়ে দেয়ার পর আরো জোরালোভাবে কাজটি চালিয়ে আসছেন।
এদিকে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ইতিহাস ঐতিহ্যপ্রেমী শিক্ষক শিক্ষার্থীদের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা যায় যেখানে।
দর্শনার্থী বিশ^বিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থী নাজ বলেন, খুব ছোট ছোট যেমন ট্রেনের টিকিট, দেশলাই বাক্স যা আমাদের অনেকের কাছে তুচ্ছ। সেগুলো খুব চমতকারভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। এগুলো দেখে মনে হচ্ছে অনেক ইতিহাস হেলা করে নষ্ট করে দিয়েছি। সেগুলো স’ংগ্রহ করা উচিত ছিলো।
গ্রুপের অন্য সদস্য ফাল্গুনী রায় বলেন, মোট ২৫ জন সদস্য তাদের সাথে কাজ করছেন। তাদের অধিকাংশেরই বয়স ৫০ বছরের উর্দ্ধে। গত প্রায় ২৫/৩০ বছর ধরে সংগ্রহের কাজটি করে চলছেন তরা। কলকাতা, এপার বাংলা ওপার বাংলার বিবর্তন নিয়েই তাদের সংগ্রহ প্রচেষ্ঠা। দুই বাংলার বিবর্তনের ইতিহাস তুলে ধরা হয়েছে এই প্রদর্শনীর মাধ্যমে। যদিও অমূল্য এইসব সংগ্রহের একটির বেশি কোনভাবেই এখন খুজে পাওয়া সম্ভব নয়। ঐতিহাসিক তথ্য সংবলিত এই প্রদর্শনী মেলার দুইদিনই দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত ছিলো।
দুই দিনব্যাপী সম্মেলন ‘চিহ্নমেলা চিরায়তবাংলা‘ গতকাল মঙ্গলবার সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়। গত সোমবার এ মেলার উদ্বোধন করেন প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক। বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা সাহিত্য বিষয়ক ছোট কাগজ ‘চিহ্ন’ চতুর্থবারের মতো এ মেলার আয়োজন করে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ