বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

বিশ্বের প্রথম দ্রুত গতির উড়ন্ত গাড়ি!

আপডেট: December 12, 2019, 1:10 am

সোনার দেশ ডেস্ক


একশ বছরের বেশি সময় লেগেছে এই গাড়ি তৈরিতে। হ্যাঁ, এমন অভিনব গাড়ি তৈরির জল্পনা কল্পনা তো শত বছর ধরেই চলছে। বিশ্বের প্রথম গাড়ি যা দ্রুত গতিতে ছুটতে ও উড়তে পারবে, তা প্রদর্শন করা হলো ফ্লোরিডার মিয়ামিতে।
গাড়িটির নাম পাইওনিয়ার পারসোনাল এয়ার ল্যান্ডিং ভেইকেল অর্থাৎ পিএএল-ভি। এই যানটি প্রপেলারের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ১২,৫০০ ফুট পর্যন্ত উপরে উঠে উড়তে পারবে। অটোমোবাইল গ্যাসোলিনের মাধ্যমে চলা এই যানটি আকাশে ঘণ্টায় ২০০ মাইল বেগে ও মাটিতে ঘণ্টায় ১০০ মাইল বেগে ছুটতে পারবে। নেদারল্যান্ডের কারভার কোম্পানির তৈরি এই যানটির মূল্য ধরা হয়েছে ৫ লাখ ৯৯ হাজার ডলার। এ ধরনের ৭০টি যান কিনতে অগ্রিম অর্ডার করা যাবে।
২০২১ সালে এই যান বাজারে আসবে আশা করা হচ্ছে। এই ফ্লাইং কারটি দু’জনকে নিয়ে চলতে পারবে। এতে ২৩০ এইচপি ও ফোর সিলিন্ডার ইঞ্জিন আছে। দুই সিটের তিন চাকার এই যান গায়রো কপ্টারে পরিণত হতে পারবে মাত্র ১০ মিনিটে। আর মাত্র আট সেকেন্ডে ঘন্টায় ৬০ মাইল বেগে ছুটে যেতে পারবে।
ম্যাক্সিম ম্যাগাজিন ২০১৭ সালে পিএএল-ভি কে সত্যিকার অর্থে উড়ন্ত গাড়ি নির্মাতা কোম্পানি হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছিল। দু’বছর পর সেই ভবিষ্যদ্বাণী সত্যি হলো। পিএএল-ভি এর সিইও রবার্ট ডিঙ্গেমানসে বলেছেন, ‘কয়েক বছরের কঠোর পরিশ্রম, প্রযুক্তিগত সব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে আমাদের টিম একটি অভিনব উড়ন্ত গাড়ি উদ্ভাবন করেছে।’ কার্বন ফাইবার, টাইটেনিয়াম ও অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি এই যানটির ওজন ১,৫০০ পাউন্ড। আর এটি উড়ার জন্য ৫৪০ ফুট রানওয়ে ও ল্যান্ড করার জন্য ১০০ ফুট জায়গার প্রয়োজন হবে। এই যানটির হ্যান্ডলিং সিস্টেম মোটরবাইকের মতোই। এক্ষেত্রে একটি স্টিকের মাধ্যমে যানটিকে চালক আকাশ ও মাটি দুই জায়গাতেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।
দ্য অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে ডিঙ্গেমানসে জানিয়েছেন, মুভিতে অসংখ্যবার উড়ন্ত গাড়ি দেখা গেলেও এবার বাস্তবে তেমন গাড়ি পাওয়া যাবে আগামী বছর থেকে। আর এই উড়ন্ত গাড়ির কিছুটা সস্তা ভার্সন প্যাল-ভি লিবার্টি স্পোর্ট পাওয়া যাবে ৩ লাখ ৩৫ হাজার ডলারে। উড়ন্ত এই গাড়ির ডিজাইন এমন ভাবে করা হয়েছে, যাতে বাটনে টিপলে প্রপেলারের ব্লেডগুলো ভাঁজ হয়ে বাদুড়ের ডানার মতোই গুটিয়ে যাবে। বিশেষ এই যানটির নির্মাতা কোম্পানি জানিয়েছে, এটি কোনো হেলিকপ্টার না, যার পাখাগুলো ইঞ্জিনের মাধ্যমে ঘুরবে বরং এটি গায়রোপ্লেন যার পাখাগুলো বাতাসের মাধ্যমেই ঘুরবে। এর ফলে ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে গেলেও পাখা চলতে থাকবে।
বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের উড়ন্ত গাড়ি তৈরি করা হচ্ছে চেক রিপাবলিক, স্লোভাকিয়া, জাপান, চীন ও যুক্তরাষ্ট্রে। আর এসব উড়ন্ত গাড়ি যারা কিনবেন, তাদের কাছে ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাইলটের লাইসেন্স দুটোই থাকতে হবে।