‘বিসর্জন’-এর পর এ বার ‘বিজয়া’র অপেক্ষা

আপডেট: মে ১৪, ২০১৮, ১২:২২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পদ্মা-নাসিরকে মনে পড়ে? ঠিকই ধরেছেন, ‘বিসর্জন’-এর পদ্মা-নাসির। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের পদ্মা-নাসির। তাঁরাই আবার ফিরছেন সিনে পর্দায়। সৌজন্যে ‘বিজয়া’। কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের পরের ছবি। এ বার ‘বিসর্জন’-এর সিক্যুয়েল তৈরি করতে চলেছেন তিনি।
মুক্তি পাওয়ার পর জাতীয় পুরস্কার জিতেছে ‘বিসর্জন’। বিভিন্ন মহলে প্রশংসা পেয়েছে এই ছবি। তখন থেকেই যেন সিক্যুয়েলের জন্য শুরু হয়েছিল অপেক্ষা। প্রযোজক সুপর্ণকান্তি করাতির মতে, ‘‘হয়তো একটা গল্প শেষ হয় আর একটা গল্প শুরু হবে বলে।’’
বুধবার সন্ধেয় পরের ছবির ঘোষণা করলেন কৌশিক। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের রীতি অনুযায়ী বিসর্জনের পর বিজয়া করি। সেটাই করছি। এটা প্রেমের গল্প। আগের ছবির মুখ্য চরিত্র, পার্শ্বচরিত্র সকলেই থাকছেন এই ছবিতে। বিজয়া বিসর্জনের সিক্যুয়েল। সচেতন ভাবে আমরা জানি, হয়তো অনেকে বলবেন, বিজয়া ভাল লেগেছে, কিন্তু বিসর্জনের মতো হয়নি। আমরা এটা প্রশংসা হিসেবেই নেব। পদ্মাকে এ বার কলকাতা শহরে দেখব।’’আগামী মে মাসের শেষে শুরু হবে শুটিং। আগের বারের মতো এ বারেও টাকিতে তৈরি হবে সেট। সিক্যুয়েলের জন্য কি আলাদা চাপ রয়েছে? ‘বিসর্জন’-এর নাসির তথা আবির চট্টোপাধ্যায়ের কথায়, ‘‘বিসর্জনের স্মৃতি এখনও সকলের কাছেই টাটকা। আমরা দেখেছি কী ভাবে মানুষ ছবিটি ভালবেসেছেন। তাই এ বারের দায়িত্বটা আরও বেশি।’’ আর ‘বিসর্জন’-এর পদ্মা তথা জয়া শেয়ার করলেন, ‘‘আমার প্রাণের কাছের ছবির সিক্যুয়েল হচ্ছে বলে ভীষণ আনন্দ হচ্ছে। অন্যদিকে একটু চাপ লাগছে। পদ্মাকে যে ভাবে মানুষ ভালবেসেছেন, সেটাকে জাস্টিস করতে পারব কিনা সেটা নিয়েই চাপ। তবে আগের বারের মতো আমি সবকিছু কৌশিকদার ওপরে ছেড়ে দেব।’’
‘বিসর্জন’-এ সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্ব ছিল প্রয়াত কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্যর ওপর। ছবি মুক্তির আগেই আকস্মিক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান কালিকা। এ ছবির গানঘর সামলাবেন ইন্দ্রদীপ দাশগুপ্ত। তিনি বললেন, ‘‘কালিকার কাজটাই আমি শেষ করব এই ছবিতে। ওর অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করব।’’ বিজয়া’র জন্য এ বার অপেক্ষা। অপেক্ষা পদ্মা-নাসিরকে ফিরে পাওয়ার। তথ্য সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা