বেতনের জন্য শিশুদের ছাদে আটকে রাখল স্কুল কর্তৃপক্ষ

আপডেট: জুলাই ১২, ২০১৮, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


অভিভাবকরা স্কুলের ফি দিতে পারেননি। এই অভিযোগে শিশুদের টানা ৫ ঘণ্টা স্কুলের ছাদে আটকে রাখল কর্তৃপক্ষ। অমানবিক এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা শুরু হয়েছে।
দিল্লির রাবেয়া গার্লস পাবলিক স্কুল কর্তৃপক্ষ বেতনের জন্য শিশুদের আটকে রাখে। স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি বারবার বলা সত্ত্বেও অভিভাবকরা সময় মতো বেতন দিতে পারেননি। তাই বলে এতটা কঠোর হবে স্কুল কর্তৃপক্ষ। বাচ্চা মেয়েদের তীব্র গরমে স্কুলের ছাদে আটকে রাখা হয়। স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন অভিভাবকরা।
তারা জানিয়েছেন, সোমবার দুপুরে স্কুলের ছাদে ৪০ ডিগ্রি গরমে শিশুদের ৫ ঘণ্টা আটকে রাখা হয়। দিল্লি পুলিশ পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। এক অভিভাবক বলেন, রাবেয়া গার্লস পাবলিক স্কুলে প্রাইমারি বিভাগে পড়ে আমার মেয়ে। প্রতিদিনের মতো গত সোমবারও সকাল ৭টায় মেয়েকে স্কুলে দিয়ে আসি। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মেয়েকে নিতে স্কুলে যাই।
কিন্তু ক্লাস রুমে মেয়ে ছিল না। স্কুলের এক কর্মীকে জিজ্ঞাসা করার পর পুরো ঘটনা জানতে পারি। আমার মেয়ে ছাড়াও আরও অনেককে স্কুল কর্তৃপক্ষ স্কুলের ছাদে আটকে রেখেছিলেন। সকাল ৭টা থেকে নাকি তাদের ছাদে রাখা হয়েছিল। গিয়ে দেখি অনেকেই অসুস্থ হয়ে ছাদে শুয়ে পড়েছে।
আমরা তো পুরো দৃশ্য দেখে হতবাক। বাচ্চাদের খাবার কিংবা পানিও খেতে দেওয়া হয়নি। এরপরই সন্তানদের নিয়ে আমরা অভিভাবকরা স্কুল থেকে বেরিয়ে আসি। এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পুরো ঘটনা আমরা জেনেছি। স্কুল কর্তৃপক্ষ বাচ্চাদের ছাদে আটকে রেখেছিল। অভিভাবকরা বেতন না দেওয়াতেই এমন কাজ করা হয়েছে। এমনকি প্রধান শিক্ষিকাও অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি। আমরা এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছি।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ