বেসিক ব্যাংক: আব্দুল হাই বাচ্চুকে ‘দায়ী’ করে প্রতিবেদন

আপডেট: মার্চ ৩০, ২০১৭, ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারির তদন্তে ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাচ্চুর সংশ্লিষ্টতার তথ্য পাওয়ার কথা বলেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।
বুধবার দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “এ ব্যাপারে একটি ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট দুদকে দেয়া হয়েছে। ইনভেস্টিগেশন রিপোর্টে ‘হি (আব্দুল হাই বাচ্চু) হ্যাজ বিন ব্লেইমড’।” তবে এ বিষয়ে আর কোনো তথ্য দেননি অর্থমন্ত্রী।
আব্দুল হাই বাচ্চু বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় ২০০৯ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে ব্যাংকটির দিলকুশা, গুলশান ও শান্তিনগর শাখা থেকে নিয়মবহির্ভুতভাবে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা উত্তোলন ও আত্মসাতের ঘটনা ঘটে।
ঋণপত্র যাচাই না করে জামানত ছাড়াই জাল দলিলে ভুয়া ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ঋণ দেয়াসহ নিয়ম না মেনে ঋণ অনুমোদনের অভিযোগ ওঠে তখনকার পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে।
এ বিষয়ে ২০১০ সাল থেকে অনুসন্ধান শুরু করে দুদক। প্রায় চার বছর অনুসন্ধান শেষে ২০১৫ সালে রাজধানীর তিনটি থানায় ১৫৬ জনকে আসামি করে ৫৬ টি মামলা করে কমিশন।
আসামির তালিকায় ২৬ জন ব্যাংক কর্মকর্তা থাকলেও বাচ্চু বা পরিচালনা পর্ষদের কাউকে সেখানে রাখা হয়নি।
এ বিষয়ে দুদকের বক্তব্য, ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় বাচ্চুর সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। তাই তাকে আসামির তালিকায় রাখা হয়নি।
তবে দুদকের ওই তদন্তে অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি অসন্তোষ প্রকাশ করে। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে আলাদাভাবে এই বিষয়টি অনুসন্ধানও করা হয়।
সেই প্রতিবেদনে বাচ্চুকে দায়ী করার কথা জানিয়ে মুহিত বলেন, “এখন দেখা যাক কী হয়। পরবর্তীতে কী পদক্ষেপ নেয়া যায়।”
দুদকের ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের ‘শ্রেষ্ঠ দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির’ সদস্যদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ উপলক্ষে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।- বিডিনিউজ