বৈশাখে জমজমাট নগরীর ফুলের বাজার

আপডেট: এপ্রিল ১৪, ২০১৯, ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


বৈশাখ উপলক্ষে বেড়েছে ফুলের বেচাকেনা। নগরীর সাহেব বাজার ফুলের দোকান থেকে ফুল ক্রয় করছেন দুই তরুণী সোনার দেশ

বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। ্এই উৎসবে ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষ মেতে উঠে আনন্দের মেলায়। উৎসবের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে থাকে নানান রকমের ফুলের বাহার। প্রাণের এই উৎসবকে নিজের মনের মাধুরি মিশিয়ে মাতিয়ে তুলতে বাড়ে ফুলের বাণিজ্যিক কদর। তাই আগে থেকেই ফুল মজুদ রাখে ফুল ব্যবসায়ীরা। গতকাল নগরীর সাহেববাজার ফুলের দোকানগুলোতে ছিলো উপচে পড়া ভিড়। বিক্রেতাদের নেই দম ফেলার সময়। ছোট বড় সকল বয়েসি নারীদের ভিড় ছিলো দোকানগুলোতে। বেশির ভাগ তরুণীরা নিজেদের জন্য কিনলেও মধ্যে বয়েসি নারীরা কিনেছেন পরিবারের ছোট বাচ্চাদের জন্য। সাহেববাজার জিরোপয়েন্টের ফুল ব্যবসায়ী সন্তোষ জানান, শনিবার সকালেও তেমন বিক্রি ছিলো না। কিন্তু বিকেল চারটার পরে ক্রেতার সংখ্যা বাড়তে থাকে। বেশি বিক্রি হচ্ছে মাথার ব্যান্ড। প্রতিটি ব্যান্ড ১২০ থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি করছি।
ফুল ব্যবসায়ী সুমন হোসেন জানান,‘ মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও কিনছে প্রিয় মানুষকে উপহার দেবার জন্য। এখন বিক্রি অনেক ভালো। প্রতিটি গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ১০ থেকে ১৫ টাকায়, রজনীগন্ধা বিক্রি হচ্ছে ১২ থেকে ১৫ টাকায়, গ্লাডিওলাস ৩৫ টাকা, জারবেরা ২৫ টাকা, রজনী চেইন ৫০ টাকা, কাঁঠবিলি গাজরা ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে’।
ফুল ক্রেতা হাসিনাথ জানান,‘পয়লা বৈশাখ বলে কথা। তাই ফুল কিনতে এসেছি। কাল সকালে সময় না থাকলে কিনতে সমস্যা হবে- তাই আজ কিনতে এসেছি। মাথার ব্যান্ডসহ কিছু গোলাপ রজনীগন্ধা কিনবো।
ক্রেতা মনিরা বেগম জানালেন, ‘বাসায় ছোট মেয়ে আছে মেয়ের জন্য কিনতে এসেছি। কাল অনেক ব্যস্ত থাকবো তাই আজ অন্য বাজারের সাথে ফুল নিয়ে যাচ্ছি। একটি মাথার ব্যান্ড নিলাম সাথে কিছু গোলাপ’।
ক্রেতা নুসরাত জাহান জানান, ‘বৈশাখের সব বাজার শেষ এখন শুধু ফুল কিনতে হবে। এখন কিছু গোলাপ নিলাম। কাল সকালে বান্ধবীরা সবাই মাথার ব্যান্ড নিবো।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ