বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে নিয়োগকে কেন্দ্র করে শ্রমিকদের সড়ক ও রেলপথ অবরোধ || আ’লীগ নেতা কর্মীদের উপর হামলা

আপডেট: এপ্রিল ১০, ২০১৯, ১২:২২ পূর্বাহ্ণ

পার্বতীপুর প্রতিনিধি


বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের তৃতীয় ইউনিটে শ্রমিক নিয়োগকে কেন্দ্র করে শ্রমিকদের অতর্কীত হামলায় স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবেক মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারের ভাই সাবেক ফুলবাড়ি উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মঈন উদ্দীন খাজা, জাতীয় শ্রমিকলীগ সভাপতি জাহেদুল ইসলাম রতন, ফুলবাড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান ও আরিফুল ইসলাম সুমন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে মঈন উদ্দীন খাজা ও সুমনকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত সোমবার শ্রমিকরা নিজেদের পক্ষের লোকজনকে নিয়োগের দাবিতে তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান ফটকের সামনের সড়ক ও পার্বতীপুর-ফুলবাড়ি রেলপথ অবরোধ করে রাখে। এ সময় পার্বতীপুর থেকে রাজশাহীগামী তিতুমীর পার্বতীপুর স্টেশনে, ঢাকা থেকে পার্বতীপুরগামী দুটি একতা এক্সপ্রেস বিরামপুর ও খুলনা থেকে ছেড়ে আসা রূপসা ট্রেনটি জয়পুরহাট স্টেশনে আটকা পড়ে। এদিকে আওয়মীলীগ নেতাকর্মীদের উপর হামলা ও রেল-সড়ক পথ অবরোধের খবর পেয়ে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বিক্ষুব্ধ স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা সংঘবন্ধ হয়ে শ্রমিকদের ধাওয়া করলে শ্রমিকরা রেলপথ ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়। দুর্ঘটনা এড়াতে তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সামনে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা সতর্ক অবস্থায় অবস্থান নেয়।
জানা যায়, বড়পুকুরিয়া কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদুৎ কেন্দ্রের ২৭৫ মেগাওয়াটের তৃতীয় ইউনিটে ক্লিনার নিয়োগের জন্য টেন্ডারের মাধ্যমে জনবল সরবরাহকারী ঠিকাদার জিএম এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী মফিজুর রহামন জনিকে কাজ দেওয়া হয়। ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ১৪৪ জন পরিচ্ছন্নতা শ্রমিক নিয়োগের কাজ পায়। প্রথম দফায় ১৪ জন ও দ্বিতীয় দফায় ৯ জন শ্রমিক সরবরাহ করে তারা। গত সোমবার তৃতীয় দফায় ৩৩ জন শ্রমিক কাজে যোগদান করতে আসে। এ ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতারা তাদের কিছু শ্রমিক নিয়োগের জন্য তাপ বিদুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী অবগত করেন। নিয়োগ প্রক্রিয়ার বিষয়ে জানতে দুপুর ১টার দিকে মোটর সাইকেল নিয়ে মঈন উদ্দীন খাজা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে আসেন। এ সময় শ্রমিকরা অতর্কীত ভাবে খাজা ও তার সঈীদের উপর লাঠিসোটা নিয়ে আক্রমন চালায়। এ সময় ৪ জন গুরুতর আহত হন। খবর পেয়ে পার্বতীপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আমজাদ হোসেন তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ফটকে গেলে অবরোধকারী শ্রমিকরা তার গাড়ী লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ও পাথর ছুড়ে মারলে তার গাড়িটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। স্থানীয় হামিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মাহফুজুর রহমান বলেন, শ্রমিকরা কোন উসকানী ছাড়াই আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীদের উপর হামলা করেছে সেই সঙ্গে তাদের শ্রমিকদের নিয়োগের জন্য সড়ক ও রেলপথ অবরোধ করে রাখে। দায়ী শ্রমিকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।
এ ব্যপারে জানতে চাইলে বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক মাহবুবুর রহমান বলেন, সম্প্রতি শেষ হওয় তৃতীয় ইউনিটটির নির্মাণ কাজে অংশ নেওয়া শ্রমিকরা ইউনিটটিতে তাদের স্থায়ী নিয়োগের জন্য দীর্ঘ দিন ধরে আন্দোলন করে আসছিল। সেই সময় তাদের আন্দোলনকে প্রশমিত করার জন্য তাদের মধ্য থেকে শ্রমিক নিয়োগের আশ^াস দেওয়া হয়েছিল। বর্তমানে শ্রমিকদের দেয়া ১৪৪ জনের তালিকা থেকে শ্রমিক নিয়োগ শুরু করা হয়। নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের সঙ্গে শ্রমিকদের বিরোধপূর্ণ পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ায় আপাতত নিযোগ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। এ দিকে পার্বতীপুর স্টেশন মাস্টার জিয়াউল আহসান বলেন, শ্রমিকরা রেলপথ অবরোধ করে রাখায় দুপুর ১টা থেকে বিকেল ৫টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত রেল চলাচল বন্ধ ছিল। এতে তিতুমীর, রূপসা ও একতা ট্রেন বিভিন্ন স্টেশনে আটকা পড়ে। পরে শ্রমিকরা স্থানীয় নেতা কর্মীদের ধাওয়া খেয়ে রেলপথ ছাড়লে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ