বড়াইগ্রামে ইট-সুড়কি ফেলে নদী ভরাট

আপডেট: অক্টোবর ২৬, ২০১৬, ১১:৪১ অপরাহ্ণ


বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি
মহামান্য হাইকোর্ট যখন নির্দেশ দিয়েছে দ্রুততম সময়ের মধ্যে বড়াল নদীকে সম্পূর্ণ দখলমুক্ত করতে। ঠিক সে সময় নতুন করে ইট-সুড়কি ফেলে সেই বড়াল নদীই দখল করা হচ্ছে। নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের বোর্ণী এলাকায় স্থানীয় দুলাল হোসেন নামে এক বালু ব্যবসায়ী ওই ভরাট কাজ চালাচ্ছেন।
গত মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ইউনিয়ন ভূমি অফিস থেকে মাত্র আধা কিলোমিটার দূরে বড়াল নদীতে ট্রলিতে ভরে ইট-সুরকি ফেলে ভরাট কাজ চলছে। ট্রলি চালক সুরুজ আলী জানান, ওই ভরাট কাজ শুরু হয়েছে আরো তিনদিন আগে থেকে।
ভরাটকারী দুলাল হোসেন বলেন, নদীর মধ্যে হলেও এটি আমার ব্যক্তিগত জমি। এর সকল বৈধ কাগজপত্র আছে। নদীর জমির মালিকানা কিভাবে হলো বা সিএস, এসএ, আরএস সকল কাগজ আছে কিনা তা জনাতে চাইলে তিনি আর কোন উত্তর দেন নি।
এ বিষয়ে জোনাইল ইউপি চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হক বলেন, নদী ভরাট হচ্ছে তা জানা ছিল না। তবে দখলমুক্ত করতে  ভূমি প্রশাসন এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিলে আমি প্রয়োজনীয় সকল সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আছি।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাসরিন বানু বলেন, আমি খবর পেয়ে ভরাটের বিষয়টি খোঁজ নিতে জোনাইলের উপসহকারী ভূমি উন্নয়ন কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছি। বড়াল দখলের কোন সুযোগ নেই, বরং শীঘ্রই সকল অবৈধ দল উচ্ছেদের মাধ্যমে বড়াল নদীতে সচল করা হবে। সে বিষয়ে জোর কাজ চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ