বড়াইগ্রামে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুলছাত্রী

আপডেট: অক্টোবর ২১, ২০১৬, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ

বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি
নাটোরের বড়াইগ্রামে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে স্কুলছাত্রী মুক্তা। মুক্তা উপজেলার জোয়াড়ী ইউনিয়নের কামারদহ গ্রামের মোহর আলীর মেয়ে ও কারবালা দাখিল মাদরাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী মুক্তা। গত বুধবার তার বিয়ের আয়োজন করে বাবা মোহর আলী। খবর পেয়ে স্থানীয় প্রশাসন বিয়ে বাড়িতে হাজির হলে বরপক্ষ পালিয়ে যায়।
উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রাশেদা পারভীন জানান, ইউএনও রুহুল আমিন মাধ্যম খবর পেয়ে সন্ধায় তিনি সহকর্মীসহ মুক্তার বাবা মোহর আলীর বাড়িতে গিয়ে হাজির হন। এসময় বরপক্ষ বাস নিয়ে কণে মুক্তাদের বাড়িতে আসছিলেন। বিয়ে বাড়িতে প্রশাসনের লোক এসেছে শুনে কণের বাড়িতে পৌঁছার আগেই বাস ঘুরিয়ে পালিয়ে যায় বরপক্ষ। পরে মুক্তার বাবা মোহর আলী মেয়ে সাবালিকা হওয়ার আগে বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকা দিয়ে বিয়ে বন্ধের ঘোষণা দেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ