ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ প- হলে স্টারের ক্ষতি ১৬৬ কোটি!

আপডেট: জুন ১৬, ২০১৯, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্বকাপ শুরুর দুই সপ্তাহের মধ্যে বৃষ্টির কারণে প- হয়েছে মোট চারটি। এর মধ্যে শুধু এক ম্যাচ মাঠে গড়ানোর পর প- হয়েছে। বাকি তিন ম্যাচে টসই হয়নি। ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথেও রয়েছে বৃষ্টির শঙ্কা। আর এই ম্যাচ যদি প- হয় তবে বিশ্বকাপের সম্প্রচারক চ্যানেল স্টার স্পোর্টস ও তাদের বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে গুনতে হবে ১৬৬ কোটি টাকার লোকসান!
ইতোমধ্যেই বৃষ্টির কারণে দুশ্চিন্তায় রাতের ঘুম হারাম বিশ্বকাপের বিমা প্রতিষ্ঠানগুলোর। বৃষ্টিতে তিনটি ম্যাচ (টস হয়নি) প- হওয়ায় স্টেকহোল্ডারদের বিশাল অঙ্কের অর্থ ক্ষতিপূরণ দিতে হয়েছে বিমা-মালিকদের। কাল ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচও বৃষ্টির কারণে প- হলে ক্ষতিপূরণের অঙ্কটা আরও বাড়বে। কেননা, ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ বিশ্বকাপের সেরা লড়াইগুলোর একটি।
এরইমধ্যে বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়া গত কয়েকটি ম্যাচে বিজ্ঞাপন এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য খাতে প্রায় ১৪০ কোটি ভারতীয় রুপি লোকসানের দাবি করেছে স্টার স্পোর্টস। ফলে চ্যানেলটির বিমার প্রিমিয়াম বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩০০ শতাংশে। বিমা প্রতিষ্ঠানগুলো এত বড় লোকসান বহনের ঝুঁকি নিতে চাচ্ছে না। এছাড়া বৃষ্টিতে শুধু ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ বাতিল হলেই বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৬৬.৪৭ কোটি টাকা (১৩৭.৫ কোটি রুপি) লোকসান গুনতে হবে স্টার স্পোর্টস এবং তাদের বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠান কোকাকোলা, উবার, ওয়ানপ্লাস ও এমআরএফ টায়ারের।
আজ রোববার (১৬ জুন) ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ চলাকালীন সময়ে যেসব বিজ্ঞাপন দেখানো হবে সেসব ৫০ শতাংশ বেশি দামে বিক্রিও করে ফেলেছে চ্যানেলটি। এ ম্যাচে শুধু বিজ্ঞাপন থেকেই ১৩৭.৫ কোটি রুপি আয়ের হিসেব কষেছে স্টার স্পোর্টস। কিন্তু বৃষ্টিতে ম্যাচ প- হলে পানি পড়বে তাদের খাবার প্লেটেও।
ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে স্টার স্পোর্টসের বিজ্ঞাপনের জন্য প্রতি সেকেন্ডের দাম আড়াই লাখ রুপিও উঠেছে। তবু বিজ্ঞাপনদাতাদের ভিড় কমছে না। চ্যানেলটি বেশ আগেই বিজ্ঞাপনের বেশির ভাগ স্লট বিক্রি করে ফেলেছে। অর্থাৎ শেষ মুহূর্তে বিজ্ঞাপনের জন্য প্রতি সেকেন্ডের দাম আরও বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।