মহাসড়কে থ্রি-হুইলার চলাচল বড়াইগ্রামে প্রশাসনকে জিম্মি করে দাবি আদায়

আপডেট: আগস্ট ৩১, ২০১৮, ২:১৪ পূর্বাহ্ণ

বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি


বড়াইগ্রামে থ্রি-হুইলার চালকদের বিক্ষোভ-সোনার দেশ

নাটোরের বড়াইগ্রামে প্রশাসনকে জিম্মি করে দাবি আদায় করেছে থ্রি হুইলার চালকরা। গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটির মাসিক সভা চলাকালে মিছিল নিয়ে সেখানে প্রায় পাঁচ শতাধিক থ্রি-হুইলার চালক উপস্থিত হয়। এসময় তারা থ্রি-হুইলারের জন্য মহাসড়কে পৃথক লেন না করে তাদের চলাচলের অনুমতি চেয়ে পরিষদ চত্বরে অবস্থান নেয় এবং দাবি আদায় ছাড়া বাড়ি না ফেরার ঘোষণা দেয়।
পরে তাদের দাবির প্রেক্ষিতে সভায় উপস্থিত নাটোর- ৪ আসনের সাংসদ অধ্যাপক আবদুুল কুদ্দুস আগামী ৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মহাসড়কে থ্রি-হুইলার চলাচলের অনুমতি দেন এবং পুলিশকে আটক থ্রি-হুইলার ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ দেন।
বনপাড়া পৌরসভার মেয়র বলেন, উপজেলার আহম্মেদপুর থেকে রাজাপুর পর্যন্ত মহাসড়ক ছাড়া চলাচলের বিকল্প রাস্তা নেই। যার ফলে এই সকল এলাকায় কৃষকের কাচা সবজিসহ কৃষিজাতপণ্য বনপাড়া, আহম্মেদপুর ও রাজাপুর বাজারে বিক্রি করে থাকে। কিন্তু থ্রি-হুইলার ও ব্যাটারি চালিত ভ্যানে ওইসব পণ্য পরিবহন করা হতো। সেগুলো বন্ধ থাকায় বাজারে কৃষিপণ্য সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। বিষয়টি বিবেচ্য তবে সরকারি আদেশ লঙ্ঘন করে নয়।
সাংসদ অধ্যাপক আবদুুল কুদ্দুস এ বিষয়ে বলেন, স্থানীয় পরিবেশ বুঝে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে। থ্রি-হুইলার চালকদের যদি এটি বন্ধ করে দেওয়া হয় তাহলে এরা না খেয়ে থাকবে, এদের অধিকাংশই বিভিন্ন এনজিও থেকে লোন নিকে গাড়ি কিনেছে। আমরা নিরাপদ সড়কও চাচ্ছি আবার যাতে এসকল লোক বেকার না হয় সেদিকে খেয়াল রাখছি।
ইউএনও আনোয়ার পারভেজের সভাপতিত্বে আইন শৃঙ্খলা সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বড়াইগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, বনপাড়া পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন, বড়াইগ্রাম পৌরসভার প্যানেল মেয়র জালাল উদ্দিন জোয়াদ্দার, বড়াইগ্রাম উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুুল জলিল প্রামানিক, বনপাড়া পুলিশ তদন্দ্র কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর রফিকুল ইসলাম, উপজেলার সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যন।