মাদকমুক্ত দেশ গড়তে হলে পরিবার থেকে শুদ্ধি অভিযান শুরু করতে হবে-সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু

আপডেট: মে ৫, ২০১৯, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ

বগুড়া প্রতিনিধি


বগুড়ায় মাদকবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুক-সোনার দেশ

সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাড. শামসুল হক টুকু বলেছেন, মাদকমুক্ত দেশ গড়তে হলে পরিবার থেকে শুদ্ধি অভিযান শুরু করতে হবে। আমাদের ছেলে মেয়েরা কোথায় কার সাথে বন্ধুত্ব গড়ে তোলে, কার সাথে মেলা-মেশা করে তা অভিভাবকদের খোঁজ রাখতে হবে। পারিবারিক ও ধর্মীয় অনুশাসন প্রতিষ্ঠা করা আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব । তিনি গতকাল শনিবার সকালে শহরের শহীদ টিটু মিলনায়তনে বগুড়া জেলা প্রশাসন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর আয়োজিত মাদকবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। জীবনকে ভালোবাসুন, মাদক থেকে দুরে থাকুন’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বগুড়ায় এই মাদক বিরোধী সমাবেশ করা হয়।
বগুড়া জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদের সভাপতিত্বে ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর বগুড়ার পরিদর্শক শাহজালাল খানের সঞ্চালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য আবদুুল মান্নান, সাংসদ মো.হাবিবর রহমান, সাংসদ রেজাউল করিম বাবলু, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পরিচালক নিরোধ শিক্ষা ও যুগ্ম সচিব মু. নুরুজ্জামান শরীফ, বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা, সৈয়দ আহম্মদ কলেজের অধ্যক্ষ সাইদুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মো. মকবুল হোসেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর রাজশাহীর অতিরিক্ত পরিচালক জাফরুল্লাহ কাজল প্রমুখ।
অ্যাড. শামসুল হক টুকু বলেন, বিএনপিসহ অন্য কোন রাজনৈতিক দলের প্রতি আমাদের প্রতিহিংসা নেই। তারা ক্ষমতায় থাকতে আমাদের দলের নেতাকর্মীরা তাদের দ্বারা নিস্পেষিত হয়েছে। আওয়ামীলীগ ক্ষমাতায় যাবার প্রথমদিকে জঙ্গীবাদ ও মাদকের ভয়াবহ ছোবলে দেশ ছেয়ে গিয়েছিল। সে সময় মসজিদ-মাদ্রাসাগুলোতে নজরদারি করতে হতো। বর্তমানেও কিছু কিছু ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মসজিদের দিকে নজরদারি রাখতে হয়। বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী পদক্ষেপে বর্তমানে জঙ্গীবাদের উত্থান আর নেই। তাছাড়া পুলিশের জিরো টলারেন্সে বগুড়ায় মাদক পাওয়া দুস্কর হয়ে পড়েছে। এসব কিছুই আওয়ামীলীগ সরকারের অর্জন। তিনি বলেন, দেশকে উন্নয়নের শিখরে নিয়ে যেতে চাইলে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত ,মাদকমুক্ত,দারিদ্রমুক্ত, দুর্নীতিমুক্ত এবং জঙ্গীবাদ মুক্ত একটি দেশ গঠনের বিকল্প নেই। শুধুমাত্র সরকারের একার পক্ষে জঙ্গীবাদ ও মাদকের ভয়াবহতা থেকে দেশের মানুষদের রক্ষা করা সম্ভব নয়। দেশের সচেতন মানুষদের যে যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসতে হবে। বর্তমানে সব শ্রেণী-পেশার মানুষের মাঝে দুর্বৃত্তায়ন প্রবেশ করেছে। রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদক থেকে সবাইকে সাবধান থাকার আহবান জানিয়ে তিনি সব শ্রেণি-পেশার মানুষদের সহযোগিতায় দেশকে উন্নয়নের শিখরে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। সমাবেশে মাদকবিরোধী প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন সরকারি আজিজুল হক কলেজের শিক্ষার্থী মহাস্থান রেজিমেন্টের ক্যাডেট আতিকুল ইসলাম। সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য দেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর বগুড়ার উপ পরিচালক দিলারা রহমান। মাদকবিরোধী সমাবেশে, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সমজিদেরক ইমাম, জনপ্রতিনিধি, সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ প্রায় ৭ শতাধিক বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ