মাদকের পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরেই বগুড়ায় ৪ জনকে হত্যা

আপডেট: মে ১৫, ২০১৮, ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

বগুড়া প্রতিনিধি


মাদকের পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরেই পরিকল্পিতভাবে বগুড়ার শিবগঞ্জে ৪ জনকে হত্যা করা হয়। খুনে জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ ব্রিফ্রিঙে এ তথ্য জানিয়েছেন বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা। এসময় তিনি বলেন, ওই হত্যাকা-ে মোট ৯ জন অংশ নেয়। বাকি ৬ জনকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার কাঠগড়া চকপাড়া গ্রামের রফিকুল শেখের ছেলে জুয়েল শেখ (২৫), চন্দনপুর তালুকদারপাড়ার আবদুুস সামাদের ছেলে আবুল কালাম আজাদ (৪৮) ও ডাবুইর গ্রামের মৃত আবু বক্করের ছেলে রুবেল (৩২)।
পুলিশ সুপার জানান, নিহত জাকারিয়া এক খুনির কাছে ইয়াবা বিক্রির ছয় হাজার টাকা পেতেন। ঘটনার দুই দিন আগে সাবুর সঙ্গেও খুনিদের মারামারি হয়। এতে ৯ জনের একদল খুনি জাকারিয়া ও সাবুকে হত্যার পরিকল্পনা করে। খুনিদের একজন পাওনা টাকা ফেরত দিতে ও মাদক সেবনের কথা বলে গত ৬ মে রাত ১১ টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে মোবাইল ফোনে জাকারিয়াকে ডাবইর গ্রামে রুবেলের কাছে আসতে বলে। সাবুকেও সঙ্গে নিতে বলা হয়। জাকারিয়া ও সাবু এলে তাদের রাস্তা থেকে অন্তত আধা কিলোমিটার দূরে হাঁটু পানিতে ডোবানো ধানখেতে নিয়ে পেছন থেকে হাত বেঁধে ফেলার পর জুয়েল ও অন্য একজন একই চাকু দিয়ে পরপর জাকারিয়া ও সাবুকে গলাকেটে হত্যা করে। এ সময় আজাদ ও অন্যরা হত্যায় সহযোগিতা করে। হেলাল উদ্দিন ও খবির উদ্দিন বাউশার ওই পথ দিয়ে যাচ্ছিলেন। খুনের ঘটনা দেখে ফেলায় তাদেরও একইভাবে হত্যা করা হয়।
গ্রেফতার তিনজন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এসব জানিয়েছে। তাদের দেয়া তথ্যগুলো যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। প্রয়োজনে তাদের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। সংবাদ ব্রিফিঙের পরপরই তিনি আসামিদের নিয়ে ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা হন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের আসলাম আলী জানান, ঘটনাস্থলে পৌঁছার পর তারা ওই ৪জনকে কোথায় কীভাবে জবাই করেছে তার বিস্তারিত জানিয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ৭ মে সোমবার সকালে শিবগঞ্জ উপজেলার আটমূল ইউনিয়নের ডাবুইর গ্রামসংলগ্ন ধান খেতে চার ব্যক্তির গলা কাটা লাশ পাওয়া যায়। দুপুরে পুলিশ লাশ উদ্ধারের পর তাৎক্ষণিকভাবে দু’জনের পরিচয় পাওয়া যায়। পরে ওই দিন বিকেলে এবং রাতে অপর দু’জনের নামও জানতে পারে পুলিশ। নিহতরা হলেন, ঘটনাস্থলের তিন কিলোমিটার দূরের কাঠগাড়া চকপাড়া গ্রামের আছির উদ্দিনের ছেলে সাহাবুল ইসলাম সাবুল (৩০), একই গ্রামের জহিরুল ইসলামের ছেলে জাকারিয়া (৩২), পার্শ্ববর্তী জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলার পাঁচপাইকা চেয়ারম্যান পাড়ার আজার ম-লের ছেলে হেলাল (২৯) এবং জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার নান্দাইল গ্রামের সামসুদ্দিনের ছেলে খবির উদ্দিন (৩৫)। লাশ উদ্ধারের পর নিহত সাহাবুল ইসলাম সাবুলের বাবা আছির উদ্দিন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে শিবগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ