মান্দায় অবৈধভাবে খাস পুকুর দখল করায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা

আপডেট: জুন ১১, ২০১৯, ১২:২১ পূর্বাহ্ণ

মান্দা প্রতিনিধি


মান্দায় খাস পুকুর দখলের প্রতিবাদে এলকাবাসীর মানববন্ধন-সোনার দেশ

নওগাঁর মান্দায় অবৈধভাবে তিনটি খাস পুকুর ও একটি কবরস্থান দখলের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে স্থানীয়রা। উপজেলার ভালাইন ইউনিয়নের মুয়াই গ্রামের দখলবাজ আফসার আলী মন্ডল ও উজ্জল হোসেন প্রামানিকের বিরুদ্ধে গতকাল সোমবার বিকেলে লীলাবাজারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।
মানববন্ধন চলাকালে সংক্ষিপ্ত এক প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন ভালাইন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইব্রাহীম আলী বাবু, ইউপি সদস্য ওসমান আলী হাজারীসহ স্থানীয় খয়ের আলী, রুস্তম আলী, ডা. গোলাম মোস্তফা, রফিজ উদ্দিন তরফদার, মাহবুব আলী, জিল্লুর রহমান, বয়োজিদ দেওয়ান, আরিফ দেওয়ার, হাফিজুর রহমান প্রমুখ।
বক্তারা দাবি করেন, মুয়াই মৌজায় এক নম্বর খতিয়ানভূক্ত তিনটি পুকুর ও একটি কবরস্থান দখল করে নিয়েছেন স্থানীয় দখলবাজ আফসার আলী মন্ডল ও উজ্জল হোসেন প্রামানিক। জাল কাগজপত্র তৈরি করে ওই পুকুরগুলো নিজেদের দাবি তারা ২০১৫ সালে নওগাঁর সহকারি জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলার কাগজপত্র উপজেলা ভূমি অফিসে দাখিল করে ওই পুকুরগুলোর লীজ দেয়ার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন তারা। মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ার আগেই পুকুরগুলো জবরদখল মাছ চাষ শুরু করা হয়েছে।
বক্তারা বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে ওইসব পুকুর লীজ নিয়ে মাছ চাষ করে জীবিকা নির্বাহী করে আসছিলেন স্থানীয় মৎস্যজীবী সমিতির সদস্যরা। হঠাৎ করেই বাংলা ১৪২৬ সনে পুকুরগুলোর লীজ বন্ধ করে দেন উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটি। পুকুরগুলো অবৈধ দখলমুক্ত করে প্রকৃত মৎস্যজীবীদের মাঝে লীজ দেয়ার দাবি করেন বক্তারা।
পুকুরগুলো জবরদখলের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন উজ্জল হোসেন প্রামানিক। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পুকুরগুলোর পক্ষে আমাদের কাগজপত্র রয়েছে। এ বিষয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেছি।
উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এসএম হাবিবুল হাসান বলেন, আদালতে মামলা চলমান থাকায় পুকুরগুলো লীজ দেয়া সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে জিপির মতামত চেয়ে পত্র দেয়া হয়েছে।