মান্দায় বাকপ্রতিবন্ধী নারী অন্তঃসত্তা: অভিযুক্ত গ্রেফতার

আপডেট: নভেম্বর ১৫, ২০১৯, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ণ

মান্দা প্রতিনিধি


নওগাঁর মান্দায় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকবার ধর্ষণে অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েছেন বাকপ্রতিবন্ধী এক নারী (৩২)। এ ঘটনায় মান্দা থানায় মামলা দায়েরের পর মমিনুল ইসলাম (২৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত মমিনুল উপজেলার পরানপুর ইউনিয়নের বানিসর উত্তরপাড়া গ্রামের ফজর আলীর ছেলে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, বাকপ্রতিবন্ধী ওই নারীর স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে, ৬ বছরের শিশুকন্যাকে নিয়ে বাবার বাড়িতে থাকতেন। বিভিন্ন কাজের অজুহাতে ওই নারীকে প্রতিনিয়ত প্রতিবেশি যুবক মমিনুল তার বাসায় ডেকে নিয়ে যান। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এতে ওই নারী অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েন।
ভিকটিমের মা জানান, গত কয়েকদিন ধরে মেয়ের শারীরিক পরিবর্তন লক্ষ্য করছি। মেয়ে কথা বলতে না পারায় গত ১০ নভেম্বর তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাই। সেখানে পরীক্ষার পর মেয়ে ৭ মাসের অন্তঃসত্তা হওয়ার বিষয়টি ধরা পড়ে। তিনি আরো বলেন, এ অবস্থায় ইশারা-ইঙ্গিতের মাধ্যমে জানতে পারি প্রতিবেশি যুবক মমিনুল বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রায়ই আমার মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে নিষ্পত্তির চেষ্টার পর ব্যর্থ হয়ে মমিনুলের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা দায়ের করেছি।
মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফফর হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় মামলা দায়েরের পর অভিযান চালিয়ে আসামি মমিনুলকে গ্রেফতার ও ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ