বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

মান্দায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর বাদশা বাহিনীর তা-ব

আপডেট: December 19, 2016, 12:06 am

মান্দা প্রতিনিধি



নওগাঁর মান্দায় হিন্দু সম্প্রদায়ের এক মেয়েকে তুলে নেয়া ও শ্মশানের জমি দখলে বাধা দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সম্প্রদায়ের লোকজনের ওপর ব্যাপক তা-ব চালিয়েছে বাদশা বাহিনী। স্থানীয় আওয়ামী লীগ সভাপতি মোল্লা এমদাদুল হকের ছেলে মহিদুল হক বাদশা মাতাল অবস্থায় গত শনিবার সন্ধ্যায় ১৫-২০ জন ক্যাডার নিয়ে প্রসাদপুর বাজারে সম্প্রদায়ের বাড়ি-দোকানপাটসহ রাস্তা পথে সশস্ত্র এ হামলা চালায়।
সন্ত্রাসীরা অনুপ কুমার মহন্তের বাড়ি ভাঙচুরসহ তার স্ত্রী ও ছোটভাইকে মারপিট করে। ছয়টি মোটরসাইকেল ভাঙচুরসহ আওয়ামী লীগের বিজয় মিছিল পরবর্তী এক সমাবেশে হামলা চালায়। এ ঘটনায় ফুঁসে উঠেছে হিন্দু সম্প্রদায়সহ সর্বস্তরের মানুষ। ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল রোববার বেলা ১১টায় উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের ডাকে হিন্দু সম্প্রদায় প্রসাদপুর বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। সমাবেশে পূজা পরিষদের নেতা প্রবীণ কুমার দাস, মনোজিৎ কুমার সরকার, পরিমল কুমার রায়, বিশ্বনাথ মন্ডল, প্রলয় কুমার সরকার প্রমুখ বক্তব্য দেন। হিন্দু পরিষদের নেতারা এ সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বাদশাসহ তার ক্যাডার বাহিনীকে গ্রেফতারে পুলিশ প্রশাসনকে তিনদিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন। এ বিষয়ে প্রশাসন গড়িমসি করলে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলারও হুমকি দেয় সংখালঘু নেতারা। ব্যবসায়িদের ওপর হামলার ঘটনায় প্রসাদপুর বাজার বণিক সমিতিও বেলা ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত দোকানপাট বন্ধ রেখে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদ জানায়।
উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক অনুপ কুমার মহন্ত জানান, বাদশা বাহিনীর ক্যাডার সুমন কুমার ঘোষ ও আশরাফুল ইসলাম প্রসাদপুর শ্মশানের জমি দখলের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। তারা গত ১৪ ডিসেম্বর রাতে হিন্দু সম্প্রদায়ের এক মেয়েকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যাবার চেষ্টা করে। এ ঘটনায় ১৫ ডিসেম্বর দুপুরে সুমন ও আশরাফুলকে মারপিট করে মেয়ে পক্ষের লোকজন। এসব ঘটনার জের ধরে শনিবার সন্ধ্যায় বাদশা বাহিনী প্রসাদপুর বাজারে ঘণ্টাব্যাপী তান্ডব চালায়।
তিনি আরো বলেন, সন্ত্রাসীরা তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, আলমারিসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। এসময় তারা অনুপ মহন্তের অসুস্থ স্ত্রী সরমা রানী, ভাই পার্থ প্রতীম লিটু ও প্রতিবেশি দীপ্তকে মারপিট করে। সন্ত্রাসীরা মহন্ত অটোজে হামলা চালিয়ে তিনটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। বাজারের হিন্দু পল্লির গোবিন্দ গোস্বামী বাড়িতে হামলা চালিয়ে তার ভাই গোপাল গোস্বামীকে কান ধরে উঠবস করাসহ তাদের একটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে।
উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির আহবায়ক প্রবীণ কুমার দাস জানান, বাদশা বাহিনী প্রসাদপুর বাজার থেকে হিন্দু বিতাড়িত করার ঘোষণা দিয়ে বাপ্পী নাগের বর্ষা কসমেটিকস ও দেবুর টিভি মেরামতের দোকানে হামলা চালায়। এসময় তাদের মারপিটসহ দোকান বন্ধ করে দেয়া হয়। মারপিটের ভয়ে বাজারের হিন্দু সম্প্রদায় তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে বাজারের হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের মধ্যে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তিনি আরো বলেন, মেয়েকে তুলে নেয়ার চেষ্টার ঘটনায় তার বাবা থানায় অভিযোগ দিলেও পুলিশ এখন পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেয় নি। এমনকি ওই ঘটনায় মামলাও রেকর্ড করা হয় নি।
এদিকে ঘটনার একদিন পেরিয়ে গেলেও ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেফতার করতে পারে নি পুলিশ। ঘটনায় স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ে চরম ক্ষোভ, অসন্তোষ ও আতঙ্ক বিরাজ করছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার জসিম উদ্দিন জানান, শনিবার বিকেলে বিজয় র‌্যালি শেষে উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে সমাবেশ চলছিল। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমদাদুল হক মোল্লার ছেলে মহিদুল হক বাদশা ১৫-২০জন সন্ত্রাসী হাতে লাঠি সোটা নিয়ে প্রথমে সমাবেশ পন্ড করার চেষ্টা করে। এরপর তারা গোবিন্দ গোসাম্বীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারপিট ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেছে। এভাবে তারা সংখ্যালঘুদের বসতবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে একের পর এক সন্ত্রাসী হামলা চালায়।
এ বিষয়ে মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনিছুর রহমান ভাঙচুর ও মারপিটের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে হামলাকারীরা পলাতক থাকায় তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয় নি। তবে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি দাবি করেন।
এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক বিপিএম পিপিএম জানান, সন্ত্রাসীরা যে দলেরই হোক, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে আইনি তৎপরতা শুরু করেছে।
ঘটনার পর নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাকিবুল ইসলাম, নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাংসদ সাধন মজুমদার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুর রহমান খান, মান্দা সার্কেলের পুলিশ সুপার আবদুর রাজ্জাক খান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।