মা ও শিশুস্বাস্থ্য পরামর্শে কল করুন ১৬৭৬৭-তে

আপডেট: জুলাই ১১, ২০১৮, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


পরিবার পরিকল্পনা এবং মা ও শিশুর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত তথ্য পরামর্শ দেওয়ার জন্য আগামী ১৬ জুলাই চালু হচ্ছে একটি কল সেন্টার। সপ্তাহের সাতদিন ২৪ ঘণ্টা চালু থাকা এই কল সেন্টারের নম্বর ১৬৭৬৭।
মঙ্গলবার (১০ জুলাই) পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের কার্যালয়ে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, সারাবিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আগামীকাল (১১ জুলাই) ২৯ তম বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালন করতে যাচ্ছি। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘পরিকল্পিত পরিবার সুরক্ষিত মানবাধিকার’। প্রতিটি দম্পতিও নাগরিকের প্রয়োজনীয় তথ্য শিক্ষা ও সেবা গ্রহণের মাধ্যমে স্বাধীনভাবে সন্তান সংখ্যা ও সন্তান জন্মের ক্ষেত্রে বিরতি নেওয়ার অধিকার রয়েছে। ‘পরিকল্পিত পরিবার’ কথার মাধ্যমেই দম্পতিদের এই অধিকার সুরক্ষিত হবে আর এই মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে পরিবার পরিকল্পনা সেবাগ্রহীতার হার বাড়াতে হবে। এতে দেশে মাতৃ ও শিশুমৃত্যু হার কমবে। অন্যদিকে মায়ের স্বাস্থ্য ভালো থাকবে এবং অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ রোধ করা যাবে।
প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের বর্তমান দারিদ্র্যসীমা ২০ শতাংশ। আর এই দরিদ্রতা একটি পরিবারের উপর প্রভাব ফেলে। মা অপুষ্টি ও অশিক্ষিত হলে সন্তান অপুষ্টি ও অশিক্ষিত হয়। এছাড়া বর্তমানে প্রাইভেট ক্লিনিকগুলোতে প্রায় ৮৫ ভাগ শিশু সিজারের মাধ্যমে জন্ম নিচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুসারে সিজার ১৫ থেকে ২০ ভাগের বেশি হতে পারবে না। আমাদের সিজারের হার কমিয়ে আনতে হবে। এছাড়া ৬০ ভাগ ডেলিভারি বাসায় হচ্ছে। হাসপাতালে ডেলিভারি ১শ’ শতাংশ করতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এক্ষেত্রে জনসচেতনতাই মুখ্য। আমাদের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার বর্তমানে সহনীয় পর্যায়ে আছে। প্রতি নারীর গড় সন্তান জন্মের হার ২ দশমিক ১। অথচ সারাবিশ্বে তা ২ দশমিক ৫। এক্ষেত্রে আমরা সফল।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. কাজী মোস্তফা সারোয়ার, স্বাস্থ্য ও শিক্ষা বিভাগের সচিব জিএম সালেহ উদ্দিনসহ পরিবার পরকল্পনা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বুধবার (১১ জুলাই) ২৯ তম বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উদযাপন উপলক্ষে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে সকাল সাড়ে ৮টায় জাতীয় জাদুঘরের সামনে শোভাযাত্রা এবং ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে সকাল সাড়ে ১০টায় উদ্বোধন অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণের আয়োজন করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এছাড়া সারাদেশে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে সেমিনার ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে।
তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ