মোহনপুরে ধান খেতে চারা নষ্ট করার অভিযোগ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৮, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

মোহনপুর প্রতিনিধি


মোহনপুরে ধান খেতে রোপণকৃত চারা এভাবে নষ্ট করে দেয়া হয়েছে-সোনার দেশ

রাজশাহী মোহনপুরে ধান খেতে রোপণকৃত চারা নষ্টের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় উপজেলার জাহানাবাদ ইউনিয়নের তাহেরপুর পাকুড়িয়া গ্রামের হরমুতুল্লাহ ছেলে হযরত বেলাল মোহনপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, পৈত্তিক সূত্রে প্রাপ্ত জমি উপজেলার তাহেরপুর মৌজা জেলএল নম্বর ১৫১ দাগ নম্বর-৪৭৯, ৪৮১ রকম ধানী পরিমান- ৪৮ শতক জমিতে দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে সরকারি বিধিমোতাবেক খাজনা খারিজ পরিশোধ করে ভোগদখল করে মৌসুমে বিভিন্ন ফসলসহ ধান চাষ করে আসছেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত শনিবার সকাল ৭টার দিকে একই গ্রামের মৃত তছির উদ্দিনের ছেলে রহিম বক্স, রহিম বক্সের ছেলে আজিম উদ্দিন, বাবুল হোসেন, সবুজ হোসেন, রসুল হোসেন, মৃত শমসের আলীর ছেলে এনামুল হক, মৃত জলিল উদ্দিন ছেলে আবদুল হামিদ, মৃত কুদ্দুস আলীর ছেলে রাকিব, মৃত লয়ম উদ্দিন ছেলে শাহাৎত হোসেন, সাজ্জাদ হোসেন হাতে বাঁশের লাঠি, হাসুয়া, কোদাল নিয়ে হযরত বেলালের রোপণকৃত ধানের খেতের চারা নষ্ট করে। বাদীরা সংবাদ পেয়ে ধান খেতে গিয়ে ধান খেতের চারা নষ্ট করতে নিষেধ করলে আবদুল হামিদ বাদীদেরকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করতে থাকেন। এরই একপর্যায়ে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন করে খেতের রোপণকৃত ধান চারা নষ্ট করে চলে যায়।
বাদী হযরত বেলাল হোসেন জানান, আবদুল হামিদ এলাকায় ভূমিদস্যু হিসাবে পরিচিত। তার নেতৃত্বে আমার জমির রোপণকৃত ধানের চারা নষ্ট করেছে। যার ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৭৫ হাজার টাকা।
এ বিষয়ে মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম আবুল কাশেম আজাদ জানান, অভিযোগ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ