যুক্তরাষ্ট্রে বেক্সিমকো ফার্মার চতুর্থ ওষুধ রপ্তানি শুরু

আপডেট: জুলাই ২৩, ২০১৮, ১:১৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্বের সবচেয়ে বড় ওষুধের বাজার যুক্তরাষ্ট্রে নিজেদের চতুর্থ ওষুধ রপ্তানি শুরু করেছে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড। গত বছর বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের তৈরি মেথোকার্বোমল ট্যাবলেট যুক্তরাষ্ট্রে বাজারজাতকরণের অনুমোদন পায়। এ বছর এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বেক্সিমকোর রপ্তানি করা ওই তৃতীয় ওষুধের প্রথম চালানটি পাঠানো হয়।
রোববার বেক্সিমকোর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কার্ভেডিলল, সোটালল ও মেথোকার্বোমলের পর তাদের রপ্তানি করা চতুর্থ ওষুধ ডায়াবেটিক রোগের মেটফরমিন হাইড্রোক্লোরাইড (৫০০ মি.গ্রা. ও ৭৫০ মি.গ্রা.)। এতে বলা হয়, মেটফরমিন হাইড্রোক্লোরাইড, ব্রিস্টল-মিয়ার্স স্কুইব-এর গ্লুকোফেজের জেনেরিক।
২০১৬ সালের ডিসেম্বরে বেক্সিমকো ফার্মা এই ওষুধের জন্য ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের অনুমোদন পায়। আইকিউভিআইএ’র তথ্য অনুসারে যুক্তরাষ্ট্রে মেটফরমিন হাইড্রোক্লোরাইডের বাজার ৪৫৬ দশমিক শূন্য ৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের।
বেক্সিমকো ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান পাপনকে উদ্ধৃত করে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “যুক্তরাষ্ট্রে চতুর্থ ওষুধ রপ্তানির মাধ্যমে বিশ্বের সবচেয়ে বড় বাজারটিতে আমাদের অবস্থান ক্রমশ শক্তিশালী হচ্ছে। “২০১৫ সালে ইউএস এফডিএ অনুমোদন লাভের পর থেকে আমাদের সক্ষমতা ও উৎপাদন খরচ সুবিধা কাজে লাগিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রোডাক্ট পোর্টফোলিও বৃদ্ধির ব্যপারে আমরা সংকল্পবদ্ধ এবং আমরা আশা করছি আগামী বছরগুলোতে বেক্সিমকো ফার্মার বড় বাজার হবে দেশটি।”
২০১৫ সালের জুন মাসে বাংলাদেশের প্রথম ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ঢোকার অনুমতি পায় বেক্সিমকো ফার্মা এবং পরের বছর রপ্তানি শুরু করে।
বেক্সিমকো ফার্মা ইউএস এফডিএ ছাড়াও এজিইএস (ইইউ), টিজিএ অস্ট্রেলিয়া, হেলথ কানাডা, জিসিসি এবং টিএফডিএসহ বিশ্বের বিভিন্ন নিয়ন্ত্রক সংস্থার স্বীকৃতি পেয়েছে। বর্তমানে ৫০টির বেশি দেশে ওষুধ রপ্তানি করছে করছে বেক্সিমকো ফার্মা । তথ্যসূত্র: বিডি নিউজ