রাঙামাটির নানিয়ারচরে পাহাড় ধসে নিহত ১১

আপডেট: জুন ১৩, ২০১৮, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


এক বছরের মাথায় আবারো পাহাড় ধস-সংগৃহীত

টানা বৃষ্টির মধ্যে রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় পাহাড় ধসে ১১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।
উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা জানান, গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টির কারণে পাহাড় ধসে মঙ্গলবার সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
এক বছর আগে যে দিনে রাঙামাটির বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধসে শতাধিক মানুষ মারা গিয়েছিল, সেই দিনটিতে একই ঘটনা ঘটল।
পকায়ালিটি চাকমা বলেন, “উপজেলার বড়পুল পাড়ায় দুই পরিবারের চারজন, ধর্মচরন কার্বারি পাড়ায় একই পরিবারের চারজন, হাতিমারা এলাকায় দুইজন এবং গিলাছড়ি ইউনিয়নের মনতলা এলাকায় একজন মারা গেছেন।”
নানিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লা আল মামুন ও নানিয়ারচর থানার ওসি আব্দুল লতিফ পাহাড় ধসের বিষয়টি নিশ্চিত করলেও কতজন মারা গেছেন তা জানাতে পারেননি।
রাঙামাটির জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশীদ বলেন, তারা আটজনের মৃত্যুর খবর শুনেছেন।
তিনি বলেন, “পাহাড় ধসের কারণে সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক না থাকায় ইউএনও ওই এলাকাগুলোতে এখনও পৌঁছাতে পারেনি। ফলে নিহত বা নিখোঁজের সঠিক তথ্য পেতে কিছুটা সময় লাগছে।”
গত বছরের ভয়াবহ ধসে ১২০ জন মারা গেলেও নানিয়ারচরে কেউ মারা যায়নি। ওই ধসের পর জেলা প্রশাসন ঝুঁকিপূর্ণ বসববাসকারীদের যে তালিকা করেছেন, তাতে নানিয়ারচর উপজেলার চার ইউনিয়নে ২৩৯ পরিবারের এক হাজার ১১১ জনকে রাখা হয়।
পাহাড় ধসে ও গাছচাপায় কক্সবাজারে নিহত ২
ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে পাহাড় ধসে এবং গাছচাপায় কক্সবাজারে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।
মঙ্গলবার সকালে মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের পানিরছড়া এলাকায় এবং উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের তেলিপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন- মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের পানিরছড়া এলাকার মো.বাদশা মিয়া (৩৫) এবং উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের জামতলী এলাকার হোসেন আহমদের ছেলে মোহাম্মদ আলী (২০)।
মহেশখালী থানার ওসি প্রদীপ বলেন, “সাগরে নিম্নচাপের প্রভাবে গত শনিবার থেকে মহেশখালীতে বৃষ্টি শুরু হয়। মঙ্গলবার সকালে বৃষ্টির মধ্যে পাহাড় ধসে বাদশা মিয়ার বাড়িতে পড়ে। এতে মাটি চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।”
পরে স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে তার লাশ উদ্ধার করা হয় বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।
উখিয়া থানার ওসি মো.আবুল খায়ের বলেন, মঙ্গলবার সকালে ঝড়ো হাওয়ার সময় গাছ চাপা পড়ে মোহাম্মদ আলীর মৃত্যু হয়। তার লাশ উদ্ধার করে ক্যাম্পের একটি হাসপাতালে রাখা হয়েছে।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ