বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

রাজনীতিতে এ বার আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশ প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর?

আপডেট: January 25, 2017, 12:02 am

সোনার দেশ ডেস্ক



প্রিয়াঙ্কা সক্রিয় হতেই কেটেছে জোটের জটিলতা। বলছে কংগ্রেস। অখিলেশের কাছ থেকে একশোর বেশি আসন আদায় করে নেওয়ার কৃতিত্বও প্রিয়াঙ্কাকে দিচ্ছেন দলের শীর্ষ নেতারা। তবে কি রাজনীতিতে রাজীব তনয়ার আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশটা হয়েই গেল? বাড়ছে জল্পনা।
পুরনো কংগ্রেসিদের অনেকেই তাঁর চলনে-বলনে খুঁজে পান ইন্দিরা গান্ধীর ছায়া। লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের ভরাডুবির পর আওয়াজ ওঠে প্রিয়াঙ্কা লাও, কংগ্রেস বাঁচাও। এসবের পরও তিনি কিন্তু নিজেকে আমেথি-রায়বরেলির চৌহদ্দিতেই আটকে রেখেছিলেন। এবার পাল্টে গেল পরিস্থিতি। অখিলেশের সঙ্গে আসন রফার অঙ্কে সামনে চলে এলেন রাজীব-তনয়া। নির্বাচন কমিশনে সাইকেল শুনানির আগেই প্রিয়াঙ্কা-ডিম্পলের ছবি দিয়ে পড়ে যায় পোস্টার। কিন্তু সাইকেল দখলের পর আসন রফা নিয়ে কংগ্রেসের ওপর চাপ বাড়াতে শুরু করেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। লখনউয়ের পরিস্থিতি নিয়ে বোনের সঙ্গে দফায় দফায় আলোচনা সারেন রাহুল গান্ধী। কংগ্রেসের অন্দরের খবর রাহুলের কথাতেই অখিলেশকে ফোন করেন প্রিয়াঙ্কা। কেটে যায় জোটের জটিলতা।
রাহুল গান্ধী প্রিয়াঙ্কা বঢ়রাকে মুখ করে উত্তরপ্রদেশে ভোটে লড়ার জন্য কংগ্রেসকে পরামর্শ দেন প্রশান্ত কিশোর। সূত্রের খবর, প্রিয়াঙ্কা সামনে এলে বিজেপি খুঁচিয়ে তুলতে পারে রবার্ট বঢ়রার জমি কেলেঙ্কারি। এই আশঙ্কায় তাতে সায় দেননি সোনিয়া। কিন্তু, তাঁর রাজনৈতিক সচিব আহমেদ প্যাটেলের টুইটেই স্পষ্ট নাটকের দ্বিতীয় অঙ্কে বদলে গিয়েছে চিত্রনাট্য। প্যাটেল লিখেছেন, কংগ্রেসের হয়ে কম ওজনদার কেউ আসরে ছিলেন না। আলোচনা হয় সর্বোচ্চ পর্যায়ে। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন গুলাম নবি আজাদ এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।
এই প্রথম কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা নাম উল্লেখ করে প্রিয়াঙ্কার বড় ভূমিকার কথা স্বীকার করলেন। রাজনৈতিক মহল বলছে, আমেথি-রায়বরেলির বাইরেও গোটা উত্তরপ্রদেশে ভোটের প্রচারে বড় ভূমিকা নিতে পারেন প্রিয়াঙ্কা। তার আগে হিসাব কষেই প্রিয়াঙ্কার রাজনৈতিক উচ্চতা বৃদ্ধির কথা বলতে শুরু করেছে কংগ্রেস।
এ সবের মধ্যেই ফের আরেক দফা প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে সপা। মুবারকপুর আসনে লড়ছেন অখিলেশ যাদব। লখনউ ক্যান্টনমেন্টে সৎ ভাই প্রতীকের স্ত্রী অপর্ণাকে টিকিট দিয়েছেন তিনি। রবিবার, দলের ইশতাহার প্রকাশ হয়ে যাওয়ার পর লখনউয়ের অফিসে যান মুলায়ম সিং যাদব। সেই ছবি প্রকাশ করে অখিলেশ বোঝাতে চেয়েছেন দলে আর কোনও সমস্যা নেই। সোমবার বিজেপিতে যোগদানের জল্পনা উড়িয়ে দেন সপা-নেতা নরেশ আগরওয়াল।- ২৪ঘণ্টাডটকম