রাজনৈতিক সংকট রোডম্যাপ দিয়ে সমাধান সম্ভব নয়: ফখরুল

আপডেট: জুলাই ১৭, ২০১৭, ১:০৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর (ফাইল ছবি)নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করা একটি রাজনৈতিক সংকট, এটিকে নির্বাচনকালীন রোডম্যাপ দিয়ে সমাধান করা সম্ভব নয়, বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রবিবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নির্বাচন কমিশনের নির্বাচনকালীন রোডম্যাপ প্রকাশ বিষয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ মন্তব্য করেন।
বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা বারবার বলছি সংকটটা একটি রাজনৈতিক সংকট। রাজনৈতিকভাবে আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান করতে হবে। নির্বাচন কমিশন কোনও আলোচনা না করেই এককভাবে একটি রোডম্যাপ দিয়ে দিলেই সমস্যা সমাধান হবে না। প্রধান সংকট হচ্ছে আদৌও নির্বাচনটা কিভাবে হবে? নির্বাচনে সরকার কি অবস্থায় থাকবে, কমিশনের ভূমিকা কি থাকবে?’
প্রসঙ্গত, রবিবার নির্বাচনকেন্দ্রিক কর্মপরিকল্পনায় ৭টি করণীয় দিক ঠিক করে আনুষ্ঠানিকভাবে এক রোডম্যাপ ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা।
এই মহূর্তে নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের বড় প্রয়োজন উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, ‘সহায়ক সরকারের বিষয়ে কোনও আলোচনা না করে এই রোডম্যাপ দিয়ে সংকট নিরসন হবে না। নির্বাচনের জন্য রোড তো থাকতে হবে। এখন পর্যন্ত আমরা কোনও রোড দেখতে পাচ্ছি না, সুতরাং ম্যাপ তো পরের প্রশ্ন।’ এ বিষয়ে দলের সিনিয়র নেতা এবং নেত্রীর সঙ্গে কথা বলে দলের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেওয়া হবে, বলেও জানান তিনি।
নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশ্য খুব ভালো উল্লেখ করে বিএনপি নেতা বলেন, ‘বর্তমান সরকারও বলছে নির্বাচন নিরপেক্ষ করতে তারা সহায়তা করতে চায়। কিন্তু প্রকৃত দৃশ্য তো দেখছেন, আমরা কোনও সভা করতে পারি না। গতকাল নেত্রী বিদেশে যাবার সময় আমাদের সিনিয়র নেতাদের রাস্তায় দাঁড় করে রাখলো। এই পরিবেশ, পরিস্থিতিতে নির্বাচনের পরিবেশ আছে কি না সেটাও সবার আগে দেখতে হবে।’
নির্বাচন কমিশনের ডাকা আলোচনায় বিএনপি অংশগ্রহণ করবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গণতান্ত্রিক, নিয়মতান্ত্রিক যতগুলো পদ্ধতি আছে, সেগুলোতে আমরা যেতে চাই। এটা নির্ভর করছে নির্বাচন কমিশন এবং সরকারের সদিচ্ছার উপরে। তারা আমাদের সে পথে যেতে দিতে চায় কি না?’
এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন প্রমুখ।
তথ্যসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন